নিম্নচাপের প্রভাবে জল যন্ত্রনায় নাজেহাল সাধারণ মানুষ

HnExpress অরুন কুমার, ওয়েদার রিপোর্ট ঃ নিম্নচাপের জের, বুধবার রাত থেকেই বৃষ্টিতে ভাসছে গোটা রাজ্য। কখনও সখনও তার গতি কমলেও থামছে না ঝড়-বৃষ্টি। ফলে কম-বেশি সকলেই গৃহবন্দি। একের পর এক নিম্নচাপের প্রভাবে জেরবার কলকাতা সহ গোটা বাংলার মানুষ। গতকালও বৃষ্টিতে ভাসল গোটা রাজ্য। ৬টি জেলায় জারি করা হয়েছিল লাল সতর্কতা।

আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের তরফে জানানো হয়েছে, বৃহস্পতিবার দিনভর দুই ২৪ পরগনা, হাওড়া, ঝাড়গ্রাম, পূ্র্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুরে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টিপাত হবে। ফলে ছয় জেলায় জারি রয়েছে লাল সতর্কতা। কলকাতা, হুগলি, পুরুলিয়া ও বাঁকুড়ায় জারি করা হয়ে ছিল কমলা সতর্কতা। বৃষ্টিতে ভাসবে বীরভূম সহ মুর্শিদাবাদ ও নদিয়া জেলা। জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে দুপুর ২টো পর্যন্ত কলকাতার যোধপুর পার্ক এলাকায় ৬০ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে।

কার্যত এখন গোটা কলকাতাই জলের নিচে নিমজ্জিত। সপ্তাহান্তে এরকম টানা বৃষ্টির জেরে রীতিমতো ভোগান্তির শিকার সাধারণ মানুষ। এমনিতেই করোনা পরিস্থিতিতে অফিসে যেতে দিশেহারা হতে হচ্ছে মানুষকে। এসবের মাঝে এক হাঁটু, কোথাওবা কোমড় সমান জল পেরিয়ে কর্মক্ষেত্রে পৌঁছতে নাজেহাল চাকুরিজীবীরা।

শুধু কলকাতাই নয়, কার্যত সব জেলার চিত্রটাই এক। সর্বত্র জলে থইথই অবস্থা। অন্যদিকে, হলদিয়া টাউনশিপ এলাকা রীতিমতো জলের তলায়। নিকাশি ব্যবস্থা না থাকায় আটকে জল, সেই কারণে এদিন ঝাড়গ্রামের বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দারা রীতিমতো ক্ষোভে ফেটে পড়েন। আর বিভিন্ন এলাকায় ঘরের ভিতরেও ঢুকে পড়েছে জল। এইভাবে টানা বৃষ্টি হলে ভোগান্তি বাড়ার আশঙ্কা করছেন সাধারণ মানুষ। যদিও হাওয়া অফিস সুত্রের খবর, নিম্নচাপ সরতে সরতে ধানবাদ হয়ে বিহারের দিকে চলে গেছে।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: