জল যন্ত্রণায় জেরবার জনজীবন, প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে মৃত ১০

HnExpress নিজস্ব প্রতিনিধি, ওয়েদার রিপোর্ট ঃ জল যন্ত্রণায় জেরবার জনজীবন, প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে মৃত্যু হল প্রায় ১০ জনের। গত কয়েক দিন ধরে গোটা রাজ্য জুড়ে বৃষ্টির জেরে বেহাল পরিস্থিতি। প্রচন্ড জলস্রোতে ভাঙছে দেওয়াল, ডুবে গেছে রাস্তা, আবার কোথাও বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে ঘটছে ভয়ানক দুর্ঘটনা, এমনকি মৃত্যুও হয়েছে বহুজনের!

সুত্রের খবর এই প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণেই উত্তরবঙ্গের কালিম্পং সহ হাওড়া ও উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বনগাঁতেও মৃত্যু হয়েছে বেশ কয়েকজনের। চলতি সপ্তাহে নিম্নচাপের প্রভাবে টানা অতিভারী বৃষ্টিপাতের ফলে নদী ও রাস্তাকে আলাদা করে চেনা প্রায় মুশকিল হয়ে গেছে। আর এই ঝড় বৃষ্টির প্রভাবে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ও কোথাও কোথাও রাস্তায় ধ্বস নেমে চাপা পড়ে প্রাণ হারাচ্ছেন সাধারণ মানুষ।

শুক্রবার সকালে বনগাঁর এক বাসিন্দা রিশব অধিকারী নামের ব্যাক্তি অজান্তেই একটি বিদ্যুতের তারে হাত দিয়ে ফেলেন। তাঁর মা তাকে বাঁচাতে ছুটে যান। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত মা এবং ছেলে উভয়ই বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যুর কোলে ঢোলে পরেন। এদিকে, প্রবল বৃষ্টিতে ধ্বস নেমেছে উত্তরবঙ্গের শিলিগুড়ি থেকে শুরু করে সিকিমের একাধিক এলাকায়। ১০ নম্বর জাতীয় সড়ক ও ৩২ মাইল পল্লি সংলগ্ন মামখোলা সেবক রংপো রেলপথেও ধ্বস নামে বলে জানা গেছে।

এই ধ্বসে ২ জন শ্রমিকের মৃত্যুও হয়েছে। অন্যদিকে, একটানা বৃষ্টিতে ধ্বসে পড়েছে মুর্শিদাবাদের একাধিক বাড়ি। রেস্কিউ করতে গিয়ে মৃত্যু সংখ্যাও বাড়ছে বলে সুত্রের খবর। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, এদিন হাওড়ার দাস নগর থানা এলাকার বাসিন্দা হেমন্ত সিং এর মৃত্যু হয় তড়িতাহত হয়ে। বাড়ির ভেতরে জল ঢুকে যাওয়া অবস্থায় মেইন সুইচ অফ করতে গিয়েই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে বলে প্রাথমিক তদন্তের অনুমান। তাঁকে তড়িঘড়ি হাসপাতালে নিয়ে গেলেও চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: