পড়ুয়া সহ অভিভাবকদের সম্মান প্রদান করে নজীর গড়লেন মধ্যমগ্রামের জনপ্রতিনিধি



HnExpress ইন্দ্রাণী সেনগুপ্ত, মধ্যমগ্রাম ঃ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুপ্রেরণায় সারা রাজ্য জুড়েই চলছে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তির্ন কৃতি ছাত্র-ছাত্রীদের সম্মাননা জ্ঞাপন অনুষ্ঠান। কিন্তু এবারে কৃতি ছাত্র-ছাত্রী সহ তাদের অভিভাবক হিসেবে পিতা ও মাতাকে সম্বর্ধনা প্রদান করে এক অন্যন্য নজীর গড়লেন মধ্যমগ্রাম পুরসভার অন্তর্গত ২৫ নং ওয়ার্ডের জনপ্রতিনিধি সুকুমার মন্ডল।

https://fb.watch/eMwI3wgs83/

মধ্যমগ্রামের দোলতলা বাজারে অস্থায়ী মঞ্চ গড়ে শুধু কৃতি ছাত্র-ছাত্রীদেরই নয় পাশাপাশি পড়ুয়াদের অভিভাবকদেরও সম্মাননা প্রদান করলেন জনপ্রতিনিধি সুকুমার মন্ডল। ৭ই অগাস্ট, রবিবারের সন্ধ্যায় ইন্ডিয়ান আইডলের খ্যাতনামা সঙ্গীত শিল্পী রাজশ্রী বাগের কন্ঠে রবীন্দ্র সঙ্গীতের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা ঘটে।



এদিনের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পশ্চিমবঙ্গ সরকারের ভারপ্রাপ্ত খাদ্য ও সরবরাহ দপ্তরের মন্ত্রী রথীন ঘোষ, বারাসাত লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদার, মধ্যমগ্রাম পুরসভার পৌরপ্রধান নিমাই ঘোষ, উপ-পৌরপ্রধান প্রকাশ রাহা। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মধ্যমগ্রাম পুরসভার পুর পারিষদ সদস্য অরবিন্দ মিত্র, প্রহ্লাদ দত্ত, সুভাষ ব্যানার্জি, জনাব নজরুল ইসলাম সহ বিভিন্ন ওয়ার্ডের জনপ্রতিনিধিরা।

উপস্থিত ছিলেন পড়ুয়া-অবিভাবক সহ এলাকার অগুণতি মানুষ। এদিন প্রায় দু’শো কৃতি ছাত্র-ছাত্রীদের সম্মাননা প্রদান করা হয়। পাশাপাশি তাঁদের উৎসাহিত করতে অভিভাবকদেরকেও সম্মাননা প্রদান করে শুভেচ্ছা জানান জনপ্রতিনিধি।

https://fb.watch/eMwp8M8jON/

এছাড়াও বৃক্ষ উপহারের মধ্য দিয়ে সবুজের বার্তাও দেওয়া হয়। এদিনের অনুষ্ঠানে এসে সাংসদ ডাঃ কাকলি ঘোষ দস্তিদার বলেন, আপনার সন্তানদের এমন ভাবে শিক্ষা প্রদান করুন যাতে তাঁরা আগামীতে দক্ষ পথপ্রদর্শক হয়ে সমাজকে দক্ষ বসবাসের উপযোগী করে তুলতে পারে।



পাশাপাশি তিনি বলেন, আজকাল একটা বড় দুঃখের বিষয় হল, সারা জীবন সন্তান প্রতিপালনের পর বাবা- মা বৃদ্ধ হয়ে গেলে তাঁদের ঠাঁই হয় অবশেষে বৃদ্ধাশ্রমে। তিনি আরও বলেন, বাবা মা’কে সেবা করুন, তাদের দায়িত্ব পালন করুন। অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষ বলেন, পড়ুয়াদের উৎসাহিত করতে এমন সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠান আরও বেশি করে আয়োজন করা দরকার।

https://fb.watch/eMwCo2PrKZ/

বর্তমানে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে কন্যাশ্রী, যুবশ্রী সহ একাধিক প্রকল্পের জেরে পড়ুয়ারা আজ উপকৃত। অন্যদিকে অনুষ্ঠানের মূল উদ্যোক্তা ও আয়োজক তথা ওয়ার্ডের জনপ্রতিনিধি সুকুমার মন্ডল সাংবাদ মাধ্যমকে জানান, আমরা সবসময় নানান সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে এলাকার মানুষকে আনন্দ উৎসবে মাতিয়ে রাখার চেষ্টা করে থাকি।



আর এদিন রবীন্দ্র-নজরুলকে সম্মান জানিয়ে আমাদের অনুষ্ঠান শুভ সূচনা করেছি। আগামীকাল ২২শে শ্রাবণ, এদিন সকালে রবীন্দ্রনাথের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য ও মাল্যদান করে তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে মৃত্যুবার্ষিকী পালন করা হবে। তিনি আরও বললেন, আমরা সারা বছর ধরেই বিভিন্ন সমাজসেবামূলক কর্মকান্ড, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও সর্বোপরি মানুষকে পাশে নিয়ে মানুষের নিমিত্ত উন্নয়নের মধ্যেই থাকি।

আমরা মাঠে-ঘাটে থাকি, আর বিরোধীরা শুধু ঘরে বসে বসেই উন্নয়নের বিরোধিতা করেন। তবে আমরা ওসব কুৎসা নিয়ে ভাবিত নই। এদিনের অনুষ্ঠানে তিনি অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে ওয়ার্ডের সকল কলেজ-পড়ুয়াদের উদ্দেশ্যে ঘোষণা করেন যে, যাঁরা যাঁরা কলেজে ভর্তির জন্য ফর্ম পূরণ করতে ইচ্ছুক, তাঁরা কাউন্সিলরের কার্য্যলয়ে বা তাঁর বাড়িতে গিয়ে তাঁর কম্পিউটারের মাধ্যমে কাজ সম্পন্ন করতে পারে।প্রয়োজনে জনপ্রতিনিধির কর্মীরাও তাঁদের সহযোগিতা করবেন।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: