অতিভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা সারা রাজ্যসহ উত্তরবঙ্গে, লাল সতর্ক বার্তা জারি আবহাওয়া দপ্তরের

HnExpress অরুন কুমার, ওয়েদার রিপোর্ট ঃ বঙ্গে সক্রিয় রয়েছে মৌসুমী অক্ষরেখা। ফলে বঙ্গোপসাগর থেকে রাজ্যে প্রচুর পরিমাণে জলীয় বাষ্প ঢুকছে। এছাড়াও উত্তরপ্রদেশ থেকে অসম পর্যন্ত যে নিম্নচাপ অক্ষরেখা রয়েছে তা বিহার ও উত্তরবঙ্গের উপর বিস্তৃত।এই দু’য়ের জেরে উত্তরবঙ্গ জুড়ে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। বেশ কয়েকদিন ধরেই সকাল থেকেই আকাশের মুখ ভার।

আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, প্রবল বর্ষণে ভাসতে চলেছে উত্তরবঙ্গ। যার ফলে উত্তরবঙ্গের বেশ কিছু নদীতে ব্যাপক জলস্ফীতির সম্ভাবনাও রয়েছে। উত্তরবঙ্গের পাশাপাশি দক্ষিণবঙ্গেও একাধিক জেলায় আজ বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। এদিকে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গেও আজ সকাল থেকেই বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানাচ্ছেন আবহাওয়া বিশেষজ্ঞরা।

গত বেশ কয়েকদিন ধরেই বৃষ্টি হচ্ছে রাজ্যের একাধিক জেলায়। আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর সূত্রের খবর, সপ্তাহ জুড়েই উত্তরবঙ্গে বৃষ্টি হতে পারে। বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায়। এদিকে রাজ্যে সক্রিয় রয়েছে মৌসুমী বায়ু। গত কয়েকদিন ধরেই বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত উত্তরবঙ্গের একাধিক জেলা। ইতিমধ্যেই নদীর জলস্তর বাড়তে শুরু করেছে। বুধবার দার্জিলিং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহারে অতিভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

বৃষ্টি হতে পারে কালিম্পং ও জলপাইগুড়ি জেলাতেও। দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতেও বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ বেশি থাকায় বাড়বে আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি। আলিপুর হাওয়া অফিস জানিয়েছে, উত্তরপ্রদেশ থেকে নাগাল্যান্ড পর্যন্ত একটি নিম্নচাপের অক্ষরেখা অবস্থান করছে, যা বিহার এবং উত্তরবঙ্গের ওপর দিয়ে গিয়েছে। এই অক্ষরেখার প্রভাবেই প্রচুর পরিমাণ জলীয়বাষ্প রাজ্যে প্রবেশ করছে। এদিকে সক্রিয় রয়েছে মৌসুমী বায়ুও। এই দুইয়ের প্রভাবেই রাজ্যে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। আগামী সপ্তাহ থেকে আবহাওয়া কিছুটা বদলালেও বদলাতে পারে।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: