উড়িষ্যার ঘূর্ণাবর্তের কারণে আবার রাজ্যে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা, পূর্বাভাস দিল হাওয়া দফতর

আগামী পাঁচ দিনের মধ্যে বানভাসি হতে পারে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ—



HnExpress অরুণ কুমার, ওয়েদার রিপোর্ট ঃ শনিবার ও রবিবার রাজ্য জুড়ে বিক্ষিপ্ত ভাবে বজ্রবিদ্যুৎ সহ ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়ে ছিল আবহাওয়া দপ্তর। আজ সকাল থেকেই রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় আকাশ আংশিক মেঘাচ্ছন্ন অবস্থায় রয়েছে। এর সাথে সাথে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে বৃষ্টি। তবে দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলি থেকেও উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে অনেক বেশি বৃষ্টিপাত হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে বলে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়াবিদরা।

বিগত কয়েকদিনে রাজ্যের বিভিন্ন জেলায়
বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির পরিমাণ ধীরে ধীরে বাড়তে শুরু করেছে। একদিকে ঘূর্ণাবর্ত তো অন্যদিকে আবার মৌসুমি বায়ুর প্রভাব, ফলে দুইয়ে মিলে ইতিমধ্যেই কলকাতা এবং গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের বেশ কিছু জায়গায় বৃষ্টির ফলে মানুষের হাল বেহাল। শনিবার রাত থেকেই পশ্চিমবঙ্গের বেশ কিছু জায়গায় ভারি বৃষ্টিপাত শুরু হয়ে গেছে। আর এই পরিস্থিতির মধ্যেই রাজ্য জুড়ে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর।

উড়িষ্যার উপর সৃষ্ট হওয়া ঘূর্ণবাতের কারণেই পশ্চিমবঙ্গে আগামী পাঁচ দিনে সমস্ত জেলায় অল্প থেকে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে হাওয়া অফিস। উত্তরবঙ্গের তিন জেলায় ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস এদিন সকালে দেওয়া হাওয়া অফিস পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে, পরবর্তী ২৪-৪৮ ঘন্টা অর্থাৎ সোমবার ৯ জুলাই সকালের মধ্যে দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং জেলার কোনও কোনও জায়গায় বজ্রবিদ্যুৎ-সহ ভারী বৃষ্টি হতে পারে।

এইদিন থেকেই দিনে বৃষ্টির পরিমাণ বাড়বে। হিমালয়ের পাদদেশ সংলগ্ন পাঁচ জেলা যথা— দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং, আলিপুর দুয়ার এবং কোচবিহারের কোনও কোনও জায়গায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। তবে আগামী চার থেকে পাঁচ দিন দিনের তাপমাত্রার সেরকম কোনও পরিবর্তন হবে না বলে জানানো হয়েছে। আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী আগামী ২৪ থেকে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে বানভাসি হতে পারে কলকাতার একাধিক এলাকা।



আর ইতিমধ্যেই বৃষ্টি শুরু হয়ে গেছে দমদম, বাগুইআটি, লেক টাউন সহ উত্তর কলকাতার লাগোয়া বেশ কিছু অঞ্চলে। দক্ষিণ কলকাতার কিছু কিছু জায়গায় ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। এর ফলে প্রবল বৃষ্টিতে বানভাসি হবার সম্ভাবনা পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলার। এই জায়গা গুলির মধ্যে রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলি এবং অবশ্যই কলকাতা। ইতিমধ্যেই কলকাতার বেশ কিছু জায়গায় শুরু হয়ে গেছে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টিপাত।

আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে বাকি জেলাগুলিতেও বৃষ্টিপাতের পরিমাণ আরও বাড়তে পারে বলে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর। আগামী দুই ঘণ্টার মধ্যে বৃষ্টির পরিমাণ আরও বাড়বে, যার ফলে বানভাসি হতে পারে পশ্চিমবঙ্গের বিস্তীর্ণ এলাকা, এমনটাই পূর্বাভাস আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের। উল্লেখ করা যেতে পারে যে, ইতিমধ্যেই রাজ্য জুড়ে প্রবল বৃষ্টির কারণে বেশকিছু জেলায় বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে গত কয়েকদিন ধরে উড়িষ্যা এবং বিহারে প্রবল বৃষ্টি হওয়ায় বিভিন্ন বাঁধের জল আরো ছাড়া হতে পারে।

এর ফলে পশ্চিমবঙ্গ সরকার বন্যা পরিস্থিতি সামলাতে আরো বেকায়দায় পড়বে বলে মনেই করা হচ্ছে। এ বছর রাজ্যে বজ্রাঘাতে মৃত্যু হয়েছে প্রচুর মানুষের। সেই কারণেই রাজ্য জুড়ে বৃষ্টি চলাকালীন বাড়ির বাইরে বের হওয়া থেকে সাবধানে থাকতে হবে বলে জানিয়েছে হাওয়া দপ্তর। আবহাওয়া দপ্তরের খবর অনুযায়ী, গত কয়েক দিনের মধ্যে রাজ্য জুড়ে বিভিন্ন জেলায় ৭ থেকে ১১ সেন্টিমিটার বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

বিশেষত উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে, অর্থাৎ জলপাইগুড়ি, দার্জিলিং, কালিম্পংয়ে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে হাওয়া দপ্তর। আর ইতিমধ্যেই বাংলাদেশের আশেপাশে একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হয়েছে, যা আর কিছুদিনের মধ্যে অত্যন্ত ভয়াবহ আকার ধারণ করবে বলে মনে করছেন আবহাওয়াবিদরা। মূলত এই ঘূর্ণাবর্তের কারণেই পশ্চিমবঙ্গের গঙ্গা লাগোয়া বেশকিছু নদীবর্তী জায়গাতে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: