রাজ্যে ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস, উত্তরবঙ্গে জেলা গুলিতে বন্যার আশঙ্কায় সতর্ক প্রশাসন



HnExpress অরুণ কুমার, ওয়েদার রিপোর্ট ঃ প্রবল বর্ষণে এবার বন্যার মুখোমুখি হতে চলেছে উত্তরবঙ্গ। একাধিক জেলায় ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দিয়েছে রাজ্যের আবহাওয়া দপ্তর। এদিকে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কলকাতা সহ শহরতলির আকাশ মেঘলা থাকলেও সেভাবে বৃষ্টি হয়নি। বুধবার বিকেল থেকে উত্তরবঙ্গের পাশাপাশি দক্ষিণবঙ্গেও বৃষ্টি হওয়ার কথা। তবে সকাল থেকে কালো মেঘের কোনও চিহ্ন নেই। রোদ ঝলমল করছে। কিন্তু পূর্বাভাস অনুযায়ী আজ থেকে উত্তরবঙ্গ ও দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির পরিমাণ বাড়বে।

এটিকে লাগাতার বৃষ্টির ফলে,পশ্চিম মেদিনীপুর এর ঘাটাল সহ দক্ষিণবঙ্গের একাধিক অঞ্চল এখনও জলের তলায়। দুর্যোগ কেটে গেলেও এখনও জল নামেনি বহু জায়গায়। রাজ্যের বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন প্রশাসনও। এরই মাঝে এবার প্রবল বর্ষণের সতর্কতা জারি হয়েছে উত্তরবঙ্গেও। ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার ও জলপাইগুড়িতে।

ফলে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে সেই সমস্ত জেলায়। পাহাড়ে ধসের সম্ভাবনার কথাও জানাচ্ছেন আবহাওয়াবিদরা। পশ্চিমবঙ্গ সংলগ্ন বিভিন্ন এলাকা যেমন, নেপাল, সিকিম, ভূটান এবং বাংলাদেশ লাগোয়া এলাকায় ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টিপাত এবং পাহাড় এলাকায় ধসের সম্ভাবনার কথা জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা।
আরো উল্লেখ করতে হয় যে, লাগাতার দুই সপ্তাহের বৃষ্টিপাতের জেরে রাজ্যের বেশ কিছু জায়গায় বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

রাজ্যের বন্যা পরিস্থিতি ক্রমেই জটিলতর হয়ে উঠছে। একেই বাংলার মাটিতে জারি রয়েছে টানা বৃষ্টিপাত, আবার তার উপর এক নাগাড়ে জল ছেড়ে যাচ্ছে ডিভিসি। এর ফলে রাজ্যের বেশ কিছু জায়গায় ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। এখনো পর্যন্ত খানাকুল এবং ঘাটালের বেশ কিছু এলাকায় বন্যা পরিস্থিতি রয়েছে। অপরদিকে এর ফলে শীলাবতী নদীর জল দুকূল ছাপিয়ে ঘাটালের মাটিতে বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে।



এই আবহের মধ্যে আবার রাজ্যে ব্যাপক হারে বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। আগামী ১১ই আগস্ট থেকে শুরু করে ১৫ই আগস্ট পর্যন্ত দক্ষিণবঙ্গের সমস্ত জেলায় ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। সব থেকে বেশি বৃষ্টিপাত হবে পরবর্তী ১১ই আগস্ট এবং ১৩ই আগস্ট। আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে বুধবার কলকাতায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকতে চলেছে ৩৪° ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকতে চলেছে প্রায় ২৮° ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি।

আজ উত্তরবঙ্গের মাটিতে জলপাইগুড়ি, দার্জিলিং, কোচবিহার, কালিম্পং এবং আলিপুরদুয়ারে ব্যাপক বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। এর মধ্যে কালিম্পং ও আলিপুরদুয়ারে জারি হয়েছে কমলা সর্তকতা। আবহাওয়া দপ্তরের পূর্বাভাস অনুযায়ী আগামী কাল ১২ই আগস্ট ব্যাপক বৃষ্টিপাত হতে চলেছে কলকাতা থেকে শুরু করে হাওড়া, হুগলি, মুর্শিদাবাদ, নদিয়া, বীরভূম, পশ্চিম বর্ধমান, দুই ২৪ পরগণা জুড়ে।

রাজ্য জুড়ে ব্যাপক বৃষ্টিপাতের ফলে উত্তরবঙ্গে যেমন ধ্বস নামার সম্ভাবনা রয়েছে, তেমনই দক্ষিণবঙ্গের নদীগুলির জল স্তর বৃদ্ধি পেতে পারে। এর ফলে দক্ষিণবঙ্গের বিস্তীর্ণ এলাকায় আবার বন্যা পরিস্থিতির আশঙ্কা জারি হয়েছে।
আলিপুর আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, এই মুহূর্তে মৌসুমী অক্ষরেখা উত্তরপ্রদেশের গোরখপুর, মুজাফফরপুর, পূর্ণিয়া হয়ে জলপাইগুড়ি জেলার ওপর দিয়ে অরুণাচল প্রদেশ পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। সেই সঙ্গেই বিহার লাগোয়া উত্তরপ্রদেশের ওপর রয়েছে একটি ঘূর্ণাবর্ত।

আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, বাঁকুড়া থেকে দীঘা হয়ে বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত মৌসুমী অক্ষরেখার অবস্থান এখনও বজায় রয়েছে। এই মৌসুমী অক্ষরেখা ক্রমশ উত্তরবঙ্গের দিকে সরে গিয়ে সীমানা সংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করবে। এর প্রভাবেই বানভাসি হবে উত্তরবঙ্গের একাধিক জেলা। দক্ষিণবঙ্গে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা থাকলেও মূলত বাড়বে আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি। বুধবার থেকে বৃষ্টির পরিমাণ বাড়তে পারে কলকাতা ও আশপাশের অংশে। তবে দিনের বেলায় গরম অনুভূত হবে।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: