অন্য চোখে; বিশ্ব আদিবাসী দিবসের কিছু কথা

HnExpress ১১ই অগাস্ট, অরুণ কুমার, বিশেষ প্রতিবেদন ঃ অন্য চোখে দেখা বিশ্ব আদিবাসী দিবসের কিছু কথা আজ আপনাদের সাথে ভাগ করে নিলাম। ৯ই আগস্ট ছিল “বিশ্ব আদিবাসী দিবস।” সেই সাথে ১৯৪২’র ৯ই আগস্ট, আগস্ট বিপ্লব দিবসও হিসেবেও পালিত হয়। দেশের সকল আদিবাসীদের জন্য ভারতীয় সংবিধানে আম্বেদকর সাহেব বেশ কিছু অধিকারের কথা লিপিবদ্ধ করে গিয়ে ছিলেন।

জল-জঙ্গল-জমিন। স্বাধীনতার পর থেকেই শাসক শ্রেণী নগরায়নের নামে, ভারী শিল্প স্থাপনের নামে আদিবাসীদের উচ্ছেদ, নির্যাতন, এমনকি কিছু কিছু ক্ষেত্রে গুলি চালিয়ে হত্যাও করেছেন। কিন্তু আদিবাসীরা ব্রিটিশ শাসক, পরবর্তীকালে ভারতের শাসকশ্রেণীর বিরুদ্ধে লড়াই করে গেছে। যার মধ্যে পাঁচটি মৌলিক অধিকারের কথাও তো আমাদের সংবিধান স্বীকৃত অধিকার। প্রতিটি নাগরিক এই অধিকার ভোগ করবে। এটা রাষ্ট্রের দায়িত্ব।

কিন্তু তার থেকেও তো আদিবাসী সমেত সকল সম্প্রদায়ের মানুষ বঞ্চিত। ব্রিটিশরা যেমন বিভেদের মধ্য দিয়ে প্রায় দুইশত বছর আমাদের শাসন ও শোষণ করে গেছে, ঠিক তেমনি স্বাধীন ভারতের শাসক ও শোষক শ্রেণী নতুন কায়দায় বিভেদের মধ্য দিয়ে আমাদের অর্থাৎ শ্রমজীবী জনতার অধিকারকে হরণ করার জন্য, নিজেরা ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য এবং কর্পোরেট শোষকদের স্বার্থ রক্ষার খাতিরে আমাদের সমাজের গভীরে ঢুকে উন্নয়ন পর্ষদের নাম করে, কিছু মোড়লকে মাথায় তুলে প্রতিটি জনগোষ্ঠী ও সমাজকে আলাদা করে দিচ্ছে।

প্রসঙ্গত, ১৯৪২’র ৯ই আগস্টে মহাত্মা গান্ধীর ডাকে “ব্রিটিশ ভারত ছাড়ো” আন্দোলনে ঐক্যবদ্ধ ভাবে ঝাঁপিয়ে পড়ে আজাদীর জন্য বহু প্রাণ দিয়েছিলেন আদিবাসী সহ অন্যান্য সাধারণ মানুষ। অপর দিকে নিজেদের স্বীকৃত অধিকারকে অর্জন করার জন্য যে লড়াই আদিবাসীরা লড়ে যাচ্ছে আজও, সেটাকে আমাদের কেবল সমর্থন করলেই চলবে না, পাশেও দাড়াতে হবে সে লড়াইয়ে। আজ এটা আর একার লড়াই নয়, অত্যাচারী শাসক ও শোষকের বিরুদ্ধে চাই শ্রমজীবী মানুষের ঐক্যবদ্ধ লড়াই।

৯ই আগস্ট ১৯৪২’র “আগস্ট বিপ্লব দিবস” ও “বিশ্ব আদিবাসী দিবস, ২০২০” পালনের মাধ্যমে আজকের দিনে আমরা সবাই মিলে এটাই শপথ নিই; যেন অর্থনৈতিক স্বাধীনতা আদায়ের সংগ্রামে আমরা শোষিত বঞ্চিত শ্রেণী এক সাথে লড়তে ও জিততে পারি। ডুয়ার্সের বন, জঙ্গল, বন্যপ্রানী, চা বাগান, পাহাড়, নদী যেমন আছে তেমনি এখানে প্রায় ৫৬ রকমের জনজাতির বসবাসও আছে। প্রতিটি জাতি, উপজাতির আলাদা আলাদা ভাষা, আলাদা আলাদা সংস্কৃতি এবং খাদ্যভাস। এদের জীবন যাপন একদম সাদামাটা, এরা অল্পতেই তুষ্ট।

এরা দিনের শেষে যখন নিজের সংস্কৃতি নিয়ে মজে থাকে তখন এদের দেখে বোঝাই যায় না যে এদের জীবনে কোন দুঃখ কষ্ট আছে। অথচ এদেরকে প্রতিটি দিন জীবন সংগ্রাম করে বেঁচে থাকতে হয়। বিশ্ব আদিবাসী দিবস ৯ই আগস্ট এর এই দিনটিতে আগস্ট বিপ্লব বা ভারত ছাড়ো আন্দোলনের সূচনা হয়েছিল। ফলে এই দিনটিকে কিন্তু পরবর্তী সময়ে “৯ই আগস্ট বিশ্ব আদিবাসী দিবস” বা “ইন্টারন্যাশনাল এ্যব-অরিজিনাল পিপলস্ ডে” নামে অভিহিত করা হয়েছে।

(ক্রমশ)………..

Leave a Reply

%d bloggers like this: