নক্ষত্র পতন রাজনৈতিক মহলে, প্রয়াত হলেন ক্রেতা সুরক্ষা মন্ত্রী সাধন পান্ডে



HnExpress প্রিয়দর্শী সাধুখাঁ, কলকাতা ঃ রাজ্যের মন্ত্রী এবং মানিকতলা কেন্দ্রের তৃণমূল বিধায়ক সাধন পাণ্ডে দীর্ঘ অসুস্থতার সঙ্গে লড়াই করার পর মাত্র ৭১ বছর বয়সে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করলেন। ক্রেতা সুরক্ষা দফতরের পাশাপাশি রাজ্যের স্বনির্ভর গোষ্ঠী এবং স্বনিযুক্তি দফতরেরও মন্ত্রী ছিলেন সাধন পান্ডে। তাঁর অসুস্থতার জন্য গত অগস্ট মাসে ওই দু’টি দফতরের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল সুব্রত মুখোপাধ্যায়কে।

তাঁর আচমকা মৃত্যুতে ফের হাতবদল হয় এই দুই দফতরের। এদিন কন্যা শ্রেয়া পাণ্ডে জানিয়েছেন, ১১ই ফেব্রুয়ারি থেকে বাবার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। রবিবার সকাল ১০টা ৩৫ মিনিট নাগাদ মুম্বইয়ের কোকিলাবেন হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু হয়। মানিকতলার বিধায়কের দেহ রবিবার বিকেলেই আনা হয় কলকাতায়। কলকাতা বিমানবন্দরে হাজির ছিলেন মন্ত্রী শশী পাঁজা ও সুজিত বসু।



রবিবার তাঁর দেহ রাখা হয় পিস ওয়ার্ল্ডে। সোমবার বিকেলে অভিষেক ব্যানার্জির উপস্থিতিতে তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন হয় যথাযথ মর্যাদার সাথে। প্রয়াত মন্ত্রীর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে রাজ্যের সমস্ত সরকারি দফতরে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হয়। সাধন পাণ্ডের প্রয়াণে এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শোক প্রকাশ করেন। এক টুইট বার্তায় তিনি লেখেন, ‘আমাদের সিনিয়র সহকর্মী, দলের নেতা তথা ক্যাবিনেট মন্ত্রী সাধন পাণ্ডে আজ সকালে মুম্বইয়ে প্রয়াত হয়েছেন।

দীর্ঘদিন ধরে তাঁর সঙ্গে আমার দুর্দান্ত সম্পর্ক ছিল। তাঁর মৃত্যুতে আমি গভীর ভাবে ব্যথিত। তাঁর পরিবার, বন্ধুবান্ধব ও অনুগামীদের প্রতি আমার আন্তরিক সমবেদনা রইল।’ রবিবার নাকতলার বাসভবনে সাংবাদিক বৈঠক করে সর্বভারতীয় তৃণমূলের সহসভাপতি পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, সাধনের দেহ রাতেই বিমানবন্দর থেকে নিয়ে যাওয়া হবে কলকাতা পুরসভার নিজস্ব মর্গ ‘পিস ওয়ার্ল্ডে’।



সোমবার দুপুর ১২টায় তাঁর দেহ নিয়ে যাওয়া হয় রাজ্যের বিধানসভায়। সেখানেই তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা জানায় তাঁর সতীর্থরা। উল্লেখ্য, ১৯৮৫ সাল থেকে আমৃত্যু বিধানসভার সদস্য ছিলেন তিনি। প্রথমবার বড়তলা বিধানসভার উপনির্বাচনে জিতে বিধায়ক হয়ে ছিলেন তিনি। ২০২১ সালে মানিকতলা বিধানসভা থেকে শেষ বার জয় পান তিনি। বিধানসভা থেকে তাঁর মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় উত্তর কলকাতার বাসভবনে। সেখান থেকে তাঁকে নিমতলা মহাশশ্মানে নিয়ে গিয়ে গানস্যালুট সহযোগে তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন করা হয়।



Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: