বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবসে বারাসাতে ডায়াবেটিস সচেতনতা শিবির


~~ সবারে করি আহ্বান ~~



HnExpress নিজস্ব প্রতিনিধি, বারাসাত ঃ বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস উপলক্ষে নারায়াণা মাল্টিস্পেশালিটি হসপিটাল যশোর রোড, বারাসাত ইউনিট আয়োজন করেছিল ডায়াবেটিস সচেতনতা অনুষ্ঠানের। ডায়াবেটিস বা মধুমেহ রোগ আসলে কি? আর কেন ১৪ই নভেম্বর বিশ্ব ডায়াবেটিস ডে পালন করা হয় ?

সেই বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন বিশিষ্ট কন্সালটেন্ট জেনারেল মেডিসিন ও ডায়াবেটোলজিস্ট ডাঃ বিকাশ মাসকারা। তিনি জানান যে, ইনসুলিনের আবিস্কর্তা ফ্রেডেরিক ব্যান্টিংয়ের জন্মদিনটিকেই ওয়ার্ল্ড ডায়াবেটিস ডে বা বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস হিসাবে পালন করা হয়। সার্ভে বলছে, প্রতি ২ জন পূর্ণবয়স্ক মানুষের মধ্যে ১ জনের ডায়াবেটিস ধরা পড়ে না, যেটা মারাত্মক।



কারা ডায়াবেটিক পেসেন্ট, কারা প্রি ডায়াবেটিক ও কারা ডায়াবেটিক নয় এবং তাদের জীবনযাত্রা ঠিক কিরকম সে বিষয়েও আলোকপাত করেন ডাঃ মাসকারা। তিনি আরও বলেন, ওবেসিটি, হাই ব্লাড প্রেশার, হাই কোলেস্টেরল, অলসতা হলো ডায়াবেটিসের অন্যতম প্রধান কারণ। অনিয়মিত সময়ে খাবার খাওয়া, বিশেষত ব্রেকফাস্ট বা লাঞ্চ এবং যথেষ্ট সচেতনতার অভাবই ডায়াবেটিস বা মধুমেহ রোগ হওয়াকে ত্বরান্বিত করে।

তবে সঠিক খাদ্যাভাস ও ব্যায়াম ডায়াবেটিস রোগ প্রতিরোধের চাবিকাঠি। যদি তৎপরতার সাথে ডায়াবেটিসের চিকিৎসা না করা হয়, তাহলে চোখের সমস্যা সহ নার্ভ, কিডনি ও সর্বোপরি হার্টের সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই এই রোগের জটিলতা থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য নিয়মিত ব্লাড সুগার, ব্লাড প্রেশার ও কোলেস্টেরল পরীক্ষা করা নিতান্তই আবশ্যকীয়।

এছাড়াও পায়ের যত্ন নেওয়া দরকার। বিশেষ করে ঘা, ইনফেকশন বা আঘাত জনিত স্থান। ডায়াটেশিয়ান সিঞ্চিতা কর এদিন ডায়াবেটিসকে প্রতিরোধ করতে কি কি স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া উচিত তা নিয়েও আলোকপাত করেন

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: