বিয়ের দিনে হবু বরের পর্দা ফাঁস, বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে কয়েক লক্ষাধিক টাকার প্রতারণা



HnExpress বিশ্বজিৎ মন্ডল, মালদা বিয়ের দিনে হবু বরের পর্দা ফাঁস হয়ে গেলো। বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে বেশ কয়েক লক্ষ টাকার প্রতারণার অভিযোগ উঠলো পাত্রের বিরুদ্ধে। কলেজ প্রফেসরের মিথ্যা পরিচয় দিয়ে এক মহিলা স্বাস্থ্যকর্মীর কাছ থেকে ধাপে ধাপে প্রায় ৬ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা প্রতারণার অভিযোগ উঠছে তার বিরুদ্ধে। পত্রিকায় পাত্র চাই বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রায় তিন বছর আগে মহিলা স্বাস্থ্যকর্মীর সঙ্গে কলেজ প্রফেসার পরিচয় দিয়ে বিয়ে ঠিক করেন এই দুইনম্বরি পাত্র।

পুলিশ সুত্রে জানা গিয়েছে, প্রতারিত মহিলা স্বাস্থ্যকর্মীর নাম পূজা সেন (৩১)। তাঁর বাড়ি আলিপুরদুয়ার শহর এলাকায়। তাঁর বাবা একজন অবসরপ্রাপ্ত সৈনিক। হবু প্রতারক পাত্রের নাম সুমন মজুমদার। তিনি পরিচয় সহ তার ঠিকানা দেন যে, তার বাড়ি মালদা শহরের সর্বমঙ্গলা পল্লী এলাকায়। বুধবার দুপুরে হবু পাত্রের খোঁজে ইংরেজ বাজার থানার পুলিশের দ্বারস্থ হন মহিলা স্বাস্থ্যকর্মী।

তিনি জানান যে, তাঁর বিয়ের জন্য বাড়ি থেকে গত তিন বছর আগে পত্রিকায় একটি বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়েছিল। সেই বিজ্ঞাপনে দেওয়া নাম্বারে মোবাইল মারফত প্রফেসর পরিচয় দিয়ে সুমন মজুমদার তাঁদের বাড়ির সঙ্গে যোগাযোগ করেন। তাদের বিয়েও ঠিক হয় যায়। বিয়ের আসবাবপত্র এবং অন্যান্য খরচের কথা বলে ধাপে ধাপে প্রায় ৬ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা নগদ প্রতারণা করে হবু বর।

বারবার বিয়ের তারিখ পিছিয়ে পিছিয়ে, অবশেষে ২রা ফেব্রুয়ারি বিয়ের দিন ধার্য হয়। কিন্তু বিয়ের আগে মোবাইলে কোনো যোগাযোগ না হওয়ার কারণে বিয়ের দিন হবু বরের খোঁজে পাত্রী সোজা উপস্থিত হন মালদা শহরে। হাতে পাত্রের ছবি এবং পুলিশের কাছে লেখা একটি অভিযোগের কপি নিয়ে মালদা শহরের সর্বমঙ্গলাপল্লী এলাকায় হন্যে হয়ে খুঁজেও খোজ পাননি হবু বরের।



বিয়ের দিন হবু বরের দেওয়া ঠিকানায় বরের খোঁজ না পেয়ে বাবা মাকে সঙ্গে নিয়ে পাত্রী আবার ফিরে যান নিজের বাড়ির উদ্দেশ্যে। প্রতারক হবু বরের মোবাইল নম্বরে বারংবার ফোন করেও কথা হওয়া তো দূর, কোনরকম যোগাযোগও হয়নি তার সঙ্গে। অবশেষে, ইংরেজবাজার থানার পুলিশের দ্বারস্থ হয় পাত্রী সহ তাঁর পরিবার। বিষয়টি খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারী অফিসাররা।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: