রাতের অন্ধকারে জেসিপি মেশিন দিয়ে একশো দিন প্রকল্পে‌র পুকুর খননের অভিযোগ পঞ্চায়েত সদস্যের বিরুদ্ধে



HnExpress মালদা, বিশ্বজিৎ মন্ডল ঃ জব কার্ড হোল্ডারদের বঞ্চিত রেখে রাতের অন্ধকারে জেসিপি মেশিন দিয়ে একশো দিন প্রকল্পে পুকুর খননের অভিযোগ উঠেছে হরিশ্চন্দ্রপুর ২ নং ব্লকের দৌলতনগর গ্রাম পঞ্চায়েতের টালবাংরুয়া বুথের তৃনমূল কংগ্রেসের পঞ্চায়েত সদস্য আব্দুল গাফফার এর বিরুদ্ধে।

পুকুর খননের কাজ বন্ধ করে দিয়ে ব্লক প্রশাসন, এসডিও ও বিডিও’র নিকট লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন টাল বাংরুয়া বুথের প্রায় একশো বঞ্চিত হয়ে যাওয়া জব কার্ড হোল্ডাররা। জব কার্ড হোল্ডারদের অভিযোগ, সাধারণ মানুষকে বঞ্চিত করে দলীয় ক্ষমতার জোরে রাতের অন্ধকারে জেসিপি মেশিন দিয়ে একাধিক পুকুর খনন করে ভুয়ো জব কার্ড দ্বারা লক্ষ লক্ষ টাকা তুলে আত্মসাৎ করেছে ওই পঞ্চায়েত সদস্য।

অথচ একশো দিনের কাজের প্রকল্পে যাঁদের জবকার্ড আছে, তাঁদের কাজ দেওয়া হচ্ছে না। যেখানে সরকারি নির্দেশে বলা হচ্ছে, একশো দিনের কাজের প্রকল্পে এলাকার মানুষকে বেশি বেশি করে কাজ দেওয়ার জন্য। ইতিমধ্যে ভিন্ রাজ্য থেকে বহু পরিযায়ী শ্রমিক কাজ হারিয়ে গ্রামে ফিরে এসেছেন। এঁদের মধ্যে অনেকেরই জমানো টাকা শেষ হয়ে গিয়েছে। কাজ না থাকায় সংসার চালাতে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে, এমনটাই বক্তব্য তাদের।

এদিকে পঞ্চায়েত সদস্য আব্দুল গাফফার জানান, তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা এই অভিযোগ একেবারেই ভিত্তিহীন। যাঁরা অভিযোগ জানিয়েছেন তাঁরা কাজ না করেই টাকা দাবি করেছিল। টাকা দিতে অস্বীকার করায় এই ধরনের মিথ্যা অভিযোগ করেছেন তাঁরা। আমি এখনও বলছি, তাঁরা সুষ্ঠ ভাবে কাজ করতে চাইলে কাজ করতে পারেন। দৌলত নগর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান পিন্টু কুমার যাদব জানান, লিখিত কোনো অভিযোগ পাইনি এখনো।



মোবাইল ফোন মারফতে তাকে অভিযোগ জানানো হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলেই তদন্ত করে বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন। অন্যদিকে হরিশ্চন্দ্রপুর ২নং ব্লকের বিডিও বিজয় গিরি জানান, তিনি লিখিত অভিযোগ পেয়েছেন। জেসিপি মেশিন দিয়ে একশো দিন প্রকল্পে মাটি কাটার নিয়ম নেই।অভিযোগ সত্য হলে ওই পঞ্চায়েত সদস্যের বিরুদ্ধে আইনত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: