‘নবান্ন ঘেরাও অভিযান’ ন্যাসাৎ করতে সক্রিয় কলকাতা পুলিশ প্রশাসন

HnExpress ৮ই অক্টোবর, নিজস্ব প্রতিনিধি, নবান্ন ঃ এদিন বিজেপি সমর্থকদের দ্বারা কলকাতা হাওড়া মিলিয়ে চার জায়গায় জমায়েত হলেও, নবান্নের ধারে কাছেও যেতে দিতে নারাজ কলকাতা পুলিশ। নবান্ন ঘেরাও অভিযান ন্যাসাৎ করতে সকাল থেকেই সক্রিয় ছিল পুলিশ প্রশাসন। তবে ইতিমধ্যেই এই বিরাট মিছিল নবান্নের দিকে যাওয়ার সময় আন্দুল রোডে প্রবল যানজটের সৃষ্টি হয়েছে বলে সুত্রের খবর।

অন্যদিকে, রেড রোডের একাংশ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি কাঁদানে গ্যাস ও জল কামান ছোঁড়ার ব্যবস্থা পুরোদস্তুর তৈরিই ছিল। আর টোলপ্লাজা গুলোতে পুলিশি ব্যরিকেডের ঘেরাটোপের ব্যবস্থাও করা হয়েছে। সুত্রের খবর অনুযায়ী জানা গেছে, হেস্টিংস থেকে একটি মিছিলের নেতৃত্বে থাকবেন স্বয়ং মুকুল রায় ও কৈলাস বিজয়বর্গীয়।

আর এর তৃতীয় মিছিলটি রাজ্য বিজেপির সহ সভাপতি রাজু বন্দ্যোপাধ্যায় ও সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসুর নেতৃত্বে শুরু হবে হাওড়ার সাঁতরাগাছি বাসস্ট্যান্ড থেকে। হাওড়া ময়দান থেকে চতুর্থ মিছিলে নেতৃত্ব দেবেন বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ এবং বিজেপি যুব মোর্চার সর্বভারতীয় সভাপতি তেজস্বী সূর্য।

মিছিল শুরুর সময় নির্ধারণ করা হয়েছে বেলা বারোটায়। প্রথম মিছিলটি শুরু হবে রাজ্য বিজেপির সদর দফতরের সামনে থেকে। প্রায় তিন হাজার পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে এই ঘটনাস্থলে। নজরদারিতে থাকছে জয়েন্ট সিপি ও অ্যাডিশানাল সিপি। এদিনের কর্মসূচি নিয়ে সৌমিত্র খাঁ জানিয়েছেন, পুলিশ এখানে বাধা দিতে এলেই শুরু হবে তুমুল লড়াই।

পাশাপাশি সায়ন্তন বসু বলেন, যেখানেই পুলিস সেখানেই বিক্ষোভ হবে বেশি করে। এদিকে, ত্রিস্তরীয় ব্যারিকেডে প্রস্তুত পুলিশ। আজ যেন কোনো ভাবেই ভারতীয় জনতা পার্টির রাজ্য নেতৃত্বে ও কর্মী-সমর্থকদের নবান্নের ধারে কাছেও ঘেঁষতে দেওয়া না হয়। এইরকমই জবরদস্ত বন্দোবস্ত করে রাখা হয়েছে বলে জানা গেছে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: