বিধানসভা ভোটের আগে তৃণমূলের বিরুদ্ধে প্রচার জোরদার করতে বিজেপির একাধিক কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ বাংলায়

HnExpress ২৮শে সেপ্টেম্বর, অরুণ কুমার ঃ রাজ্য বিধানসভার ভোট যত এগিয়ে আসছে পারদ জমতে শুরু করেছে ভোটযুদ্ধের। কালী পুজোর পরেই আসছেন অমিত শাহ ও জেপিন নাড্ডা সহ একাধিক দলীয় নেতৃবৃন্দ। মূলত বিধানসভা ভোটের আগে তৃণমূলের বিরুদ্ধে প্রচার জোরদার করতে একাধিক কেন্দ্রীয় নেতা বাংলায় প্রচারে জন্য আসবেন বলে দলীয় সূত্রে জানা গিয়েছে। উল্লেখ্য যে করোনা পর্বে বাংলায় তাঁরা একাধিক ভার্চুয়াল জনসভা করে ছিলেন।

কালী পুজোর পরে আর কোনও ভার্চুয়াল সভা নয়। বরং রাজ্যের বিভিন্ন জায়গাতে এই সব বিজেপি নেতারা বৈঠক শেষে সভা করবেন বলেই জানা গিয়েছে। লক্ষ্য অবশ্যই ২০২১ এর বিধানসভা ভোট। তাই কালী পুজোর পরে পরেই বিজেপি নেতারা একে একে বাংলায় এসে সভা করবেন। রাজ্য বিজেপির অন্যতম সহ সভাপতি দীপেন প্রামাণিক জানিয়েছেন, কালীপুজোর পরে জেপি নাড্ডা, অমিত শাহ সহ আরও অনেক নেতৃত্ব বাংলায় আসার কথা থাকলেও, তাদের আসার আগে থেকেই পুরোপুরি প্রচারের জন্য রাজ্য বিজেপিকে নির্দেশ দিয়েছে দিল্লি।

কৃষিবিল নিয়ে প্রচারের জন্য বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব গ্রাম বাংলায় ভোট প্রচারের জন্য নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য বিজেপিকে। অপরদিকে, কৃষি বিল নিয়ে ইতিমধ্যেই রাস্তায় নেমে পড়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। জোট ধর্ম মেনে বাম, কংগ্রেস কৃষি বিল দিয়ে একসঙ্গে রাস্তায় আন্দোলন করছে তারা। কিন্তু বিরোধীরা যাতে একতরফা মানুষের মধ্যে না পৌঁছাতে পারে, সেই জন্যই এবার দলের সাংসদদের কৃষি বিল নিয়ে মানুষ এর কাছে পৌঁছানোর জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

জানা গিয়েছে, তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে প্রচার জোরদার করতেই আসন্ন অক্টোবর মাসের প্রথম সপ্তাহতেই নবান্ন ঘেরাও অভিযান কর্মসূচি নিয়েছে যুব মোর্চা। সেই কর্মসূচি সফল করতে ব্যস্ত রাজ্য বিজেপির নেতারাও। নবান্ন ঘেরাও অভিযান কর্মসূচি সফল ভাবে শেষ করেই কৃষি বিল নিয়ে পাল্টা তৃণমূলের বিরুদ্ধে প্রচারে নামতে চায় রাজ্য বিজেপি। টানা একমাস এই নিয়ে দলের সাংসদ, বিধায়কদের প্রচার করতে বলা হয়েছে। তারপরেই বাংলায় চলে আসবেন একাধিক কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব।

সম্প্রতি, বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি রূপে দায়িত্বপ্রাপ্ত এ রাজ্যের মুকুল রায় ও কেন্দ্রীয় স্তরে বিজেপি নেতৃত্বের সাথে বৈঠকের পর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে দলীয় সূত্রে আভাস পাওয়া গেছে। বিজেপি দলীয় সূত্রের খবর, প্রথমেই দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের দিয়ে দুই ২৪ পরগণায় আগামী ২০২১ এর জন্য প্রচার জোরদার করতে চান বিজেপির রাজ্য নেতৃত্ব।

তাঁরা মনে করছেন আমফানের দুর্নীতি এই জেলা গুলিতেই সব থেকে বেশি হয়েছে বলে।
তাই এই জেলাগুলিতেই জেপি নাড্ডা, অমিত শাহ এসে প্রথমে প্রচারের ঝড় তুলবেন। এই রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেসের বিপরীত মোকাবিলায় বিজেপির এই রণকৌশল কতটা সাফল্য লাভ করবে তার জন্য আমাদের অপেক্ষা করা ছাড়া উপায় নেই।

Leave a Reply

%d bloggers like this: