পরকীয়ার শাস্তি, দ্বিতীয় স্বামী তথা প্রেমিকের বুকে চাকু ঢুকিয়ে হত্যা করল প্রথম স্বামী—



HnExpress বিশ্বজিৎ মন্ডল, মালদা ঃ অবশেষে পরকীয়ার চরম শাস্তি! স্ত্রীর প্রেমিকের বুকে চাকু ঢুকিয়ে হত্যা করল স্বামী। এই ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৭টা নাগাদ মালদার হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নং ব্লকের ভিঙ্গল গ্রাম পঞ্চায়েতের কনুয়া গ্রামে। এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে হরিশ্চন্দ্রপুর এলাকায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে হরিশ্চন্দ্রপুর ও চাঁচল দুই থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। অভিযুক্ত ব্যক্তিকে আটক করে থানায় নিয়ে যায় চাঁচল থানার পুলিশ। আদতে কি কারণে এই খুন তা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

যদিও স্থানীয় সূত্রে জানা যায় যে, ভিঙ্গল গ্রাম পঞ্চায়েতের কনুয়া সু্রেশমোড় এলাকার বাসিন্দা কৃষ্ণপদ সাহার স্ত্রী সাগরিকা সাহাকে নিয়ে প্রায় এক বছর আগে পালিয়ে যায় তারই প্রতিবেশী গোপালপুর গ্রামের এক বাসিন্দা গোবিন্দ প্রামানিক। তারপর তারা বিয়ে করে নতুন একটা সংসার শুরু করে। কিন্তু কিছু দিন পর থেকেই তাদের দাম্পত্য জীবনে শুরু হয় অশান্তি। আর সেই অশান্তির জেরে স্ত্রী সাগরিকা সাহা দুই সপ্তাহ আগে প্রথম স্বামী কৃষ্ণপদ সাহার কাছে আবার ফিরে আসে‌ বলে খবর।



গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় গোবিন্দ প্রামাণিক চাঁচল যাচ্ছিলেন। যাওয়ার পথে রাগের বসে কৃষ্ণপদ সাহা গোবিন্দ প্রামাণিকের উপর ধারালো অস্ত্র নিয়ে চড়াও হয় এবং পেটে চাকু ঢুকিয়ে দেয় বলে অভিযোগ। গুরুতম জখম অবস্থায় গোবিন্দ প্রামাণিককে চাঁচল সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানেই মারা যায় বলে খবর। এ প্রসঙ্গে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার তদন্তকারী অফিসার অতুল প্রসাদ মিশ্র জানান, দীর্ঘদিন ধরে ওই দুই পরিবারে অবৈধ সম্পর্কের জেরে বিবাদ চলছিল।

মঙ্গলবার স্ত্রীর দ্বিতীয় স্বামী তথা প্রেমিক গোবিন্দ প্রামানিকে সামনে পেয়েই আক্রোশের জেরে বুকে চাকু চালায় প্রথম স্বামী কৃষ্ণপদ সাহা। আক্রান্ত ব্যক্তিকে চাঁচল সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছিল, কিন্তু সেখানেই সে মারা যায়। অভিযুক্ত ব্যক্তিকে চাঁচল থানার পুলিশ আটক করেছে, চলছে জিজ্ঞাসাবাদ।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: