দিনহাটা বিধানসভা কেন্দ্রের গোবরাছড়া নয়ারহাট অঞ্চলে তৃণমূল গোষ্ঠী দ্বন্দ্বের ভয়াবহ চিত্র

HnExpress ১৮ই ফেব্রুয়ারি, সৌভিক সিংহ রায়, দিনহাটা ঃ তৃণমূলের গোষ্ঠী দ্বন্দ্বে উত্তপ্ত হয়ে উঠল দিনহাটা বিধানসভা কেন্দ্রের গোবরাছড়া নয়ারহাট এলাকা। সোমবার ঘটে এই ঘটনাটি। গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরে নয়ারহাট বাজারে তৃণমূলের পার্টি অফিস ভাঙচুর ছাড়াও বেশ কয়েকটি মোটরবাইক ভাঙচুরেরও ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় বেশ কয়েকজন তৃণমূল কর্মী আহত হয়। তাদের মধ্যে সাবেত আলী নামে এক তৃণমূল কর্মী প্রচন্ড আহত অবস্থায় দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

বর্তমানে পরিস্থিতি থমথমে। এলাকায় পুলিশি টহল চলছে। ঘটনার বিবরণে জানা গিয়েছে, এদিন তৃণমূলের একটি গোষ্ঠী দিনহাটা নয়ারহাট বাজারে তৃণমূলের পার্টি অফিসে ভাঙচুর শুরু করে। তারা অফিসের দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে ঘরের আসবাবপত্র ভাঙচুর ছাড়াও কাগজপত্র তছনছ করে। এই খবর পেয়ে তৃণমূলের অপর গোষ্ঠীর কর্মী-সমর্থকরা সমবেত হয়ে তাদের উপর চড়াও হলে যারা ভাঙচুর করছিল তারা সেখান থেকে চলে গিয়ে একটি বাড়িতে জড়ো হয়।

সেই সময় তাদের ওপর চড়াও হয় অপর গোষ্ঠীর লোকজন। এতে মারাত্মক সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। আর এতে বেশ কয়েকজন আহতও হয়। তাদের মধ্যে একজনের অবস্থা গুরুতর তাকে দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহত ওই তৃণমূল কর্মীর নাম সাবেত আলী। ওই সময় ভাঙচুর করা হয় বেশ কয়েকটি মোটরবাইক।
   

   এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। পুলিশের তৎপরতায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। বর্তমানে অবস্থা থমথমে। যেকোনো সময় নতুন করে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা কে উড়িয়ে দিচ্ছেন না ওয়াকিবহাল মহল।
   এবিষয়ে তৃণমূল নেত্রী নয়ারহাট গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান মমতাজ বেগম বলেন, দিনহাটার বিধায়ক উদয়ন গুহর অনুগামীরা ও নয়ার হাট বাজারে তৃণমূলের পার্টি অফিসে ভাঙচুর চালিয়েছে। উদয়ন গুহের বাহিনী পরিকল্পিতভাবে এলাকাকে অশান্ত করার চেষ্টা করছে। বিষয়টি জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি মন্ত্রী বিনয় কৃষ্ণ বর্মন কে জানানো হয়েছে। পুলিশের কাছেও অভিযোগ দায়ের করা হবে বলে মমতাজ বেগম বলেন।
  যদিও প্রদেশে তৃণমূল কংগ্রেস সাধারণ সম্পাদক বিধায়ক উদয়ন গুহ বলেন, নয়ার হাটের যে ঘটনা ঘটেছে তার দলের কোনো বিষয় নয়। ওটা স্থানীয় সমস্যা। যারা পার্টি অফিস ভাঙচুর করেছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পুলিশকে বলা হয়েছে।

 

Leave a Reply

%d bloggers like this: