মালদা মেডিকেল কলেজে চাকরি দেওয়ার নাম করে প্রতারণা, অভিযোগ হাসপাতালেরই এক মহিলা কর্মীর বিরুদ্ধে



HnExpress বিশ্বজিৎ মন্ডল, মালদা ঃ মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চাকরি দেওয়ার নাম করে প্রতারণার অভিযোগ মেডিকেল কলেজের এক মহিলা কর্মী সেতু মোড় এলাকার বাসিন্দা প্রিয়া সিংহ এর বিরুদ্ধে। জানা যায়, এক বছর আগে প্রায় ৬০ জনের কাছে সাড়ে ৬ হাজার টাকা বেতনের কাজ দেবে বলে প্রতারণা করে প্রিয়া সিংহ।

অভিযোগকারীরা অভিযোগ করে বলেছেন, ৬০ হাজার টাকা দিলে হাসপাতালে লিখিত কাগজ কর্মে কাজ দেবে মালদা মেডিকেল কলেজের মহিলা কর্মী প্রিয়া সিংহ। এমনই অভিযোগ উঠলো তার এর বিরুদ্ধে। দীর্ঘ এক বছর কেটে গেলেও এখন পর্যন্ত কাজের কোন খবরই নেই বলে জানিয়েছেন প্রতারিত অভিযোগকারীরা। সূত্রের খবর, এই মহিলা নিজে মালদা মেডিকেল কলেজে কর্মরত কন্টাকটারের আন্ডারে কাজ করেন।

মালদা মেডিকেল কলেজের প্রিন্সিপাল পার্থপ্রতিম মুখোপাধ্যায়ের স্বাক্ষর জাল করে তাদের হাতে মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বেশ কিছু এপয়েন্টমেন্ট লেটার তুলে দেন অনুপ মন্ডল, সঞ্জয় মন্ডল, জিতেন মন্ডল, আরো অনেক যুবকের নামে। তাদের কাজের আইডি কার্ডও ইস্যু করে দেওয়া হয়। কিভাবে এই আধিকারিকদের চোখে ধুলো দিয়ে এই নথি তৈরি করে যুবকদের কাছে পৌঁছাল তা নিয়ে হতবাক আধিকারিকরাও।



যদিও অভিযোগকারীরা পরে জানতে পারে এই বিষয়ে কাজের ক্ষেত্রে কোন কিছুই নেই। এরপর টাকা চাইলে নানারকম নাটকীয় তালবাহানা দেয়। এখানেই থেমে থাকেনি, দেখতে দেখতে দিনের পর দিন, মাসের পর মাস কেটে গেলেও অসহায় যুবকরা কাজের আশায় টাকা দিয়েও না পাচ্ছে কাজ, না টাকা ফেরত পাচ্ছে। অবশেষে তাঁরা লিখিত ভাবে অভিযোগ জানালেন মালদা মেডিকেল কলেজের প্রিন্সিপাল পার্থপ্রতিম মুখোপাধ্যায় কাছে।

অভিযোগ দায়ের হলো মালদা ইংলিশ বাজার থানাতে অভিযুক্ত ওই মহিলা কর্মীর নামে। বেশ কয়েক মাস আগে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মালদায় এসে ঘোষণা করেছিলেন দুজন নিউরো সার্জেন্ট নিয়েই মালদা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে চালু হতে চলেছে ট্রমা কেয়ার ইউনিট। আর আগামী দু’মাসের মধ্যেই এটি পুরোপুরি চালু হয়ে যাবে বলে জানিয়ে ছিলেন মালদা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের অধ্যক্ষ পার্থপ্রতিম মুখোপাধ্যায়।

আর এরই মধ্যে কর্মী নিয়োগ করে দেওয়ার নাম করে অনেক যুবককে ফাঁদে ফেলে দেয় অভিযুক্ত প্রিয়া সিংহ। স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী যেখানে বারবার ঘুষকারিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছেন সেখানে কেন স্বয়ং মালদা মেডিকেল কলেজেরই মহিলা এক কর্মীর এই হেন প্রতারণার সাহস হলো!

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: