মাঝ আকাশে ঝড়ের কবলে উড়োজাহাজ, জরুরি অবতরণ অন্ডাল বিমানবন্দরে



HnExpress নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা ঃ হঠাৎই মাঝ আকাশে ঝড়ের কবলে উড়োজাহাজ, জরুরি অবতরণ অন্ডাল বিমানবন্দরে। সুত্রের খবর ঝড়ের মুখোমুখি হওয়ায় কেবিন লাগেজ সব মাঝ আকাশেই পড়ে যায়। বিমানটিতে ৪০ জন যাত্রী সফর করছিলেন, যার মধ্যে প্রায় ১০ জন যাত্রী গুরুতর আহত হয়েছেন। বাধ্য হয়ে পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুরের কাজী নজরুল ইসলাম বিমানবন্দরে (অন্ডাল) জরুরি অবতরণ করতে হয় বিমানটিকে। অবতরণের পর আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কীভাবে বিমানটি ঝড়ের কবলে পড়েছিল তা খতিয়ে দেখতে তদন্ত শুরু করেছে অথোরিটি।

অন্যদিকে, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে আহত ১০ জন যাত্রী এখন আশঙ্কামুক্ত। অতিখারাপ আবহাওয়ার কারণে প্লেনটি নিজেই মাঝ আকাশে এয়ার টার্বুলেন্সের মধ্যে পড়েছিল। তখন জরুরি ভিত্তিতে ফ্লাইটটি অন্ডাল বিমানবন্দরে অবতরণ করতে বাধ্য হয়। সেই অবতরণের সময় কেবিন লাগেজ খুলে যাত্রীদের গায়ের উপরে পড়ে যায়। আর সেই কারণেই কয়েকজন যাত্রী জখম হয়েছেন। যদিও ফ্লাইটটি বড়সড় দুর্ঘটনার হাত থেকে বেঁচে যায়। মাঝ আকাশে যাত্রীবোঝাই বিমানটি ঝড়ের কবলে পড়লে প্রবল ঝাঁকুনি অনুভূত হয়।



আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে যাত্রীদের মধ্যে। কয়েকজন জখমও হন। এদিন মুম্বই থেকে রওনা দিয়েছিল বিমানটি। এর আগে শনিবারও কলকাতা বিমানবন্দরে অবতরণের আগে একটি বিমান ঝড়ের কবলে পড়ে। বিমানটি জোর টার্বুল্যান্সের মধ্যে পড়ে। এর ফলে এক ঘণ্টা দেরিতে বিমানটি বিমানবন্দরে ল্যান্ড করে। বিমানের ভিতরে আতঙ্কের মধ্যে ছিলেন যাত্রীরা। যাত্রীরা জানান পাইলটের অভিজ্ঞতার কারণেই তাঁরা এ যাত্রায় রক্ষা পান। শনিবার ও রবিবার কলকাতা ও তার পার্শ্ববর্তী শহরতলিতে ব্যাপক ঝড়-বৃষ্টি হয়।

যখন কলকাতা থেকে মাত্র ৪০ কিলোমিটার দূরে বিমানটি, তখনই ঝড়ের কবলে পড়ে। যাত্রীরা জানান বিমানটি তখন যেন উঠছে আর নামছে। কলকাতা আসার পথে ঝড়ের মুখে পড়ে আরও তিনটি বিমানের অভিমুখ ঘুরিয়ে দেওয়া হয়। কলকাতার বদলে অন্য বিমান বন্দরে ল্যান্ড করে বিমানটি। শনিবারের মতো রবিবারও সন্ধ্যার অনেক পর বৃষ্টি নামে। এদিনও ঝড়-বৃষ্টির দাপট ছিল বেশ জড়ালো। আর সেই কারণে মুম্বই থেকে আসা স্পাইস জেটের বিমানটি বাধ্য হয় অণ্ডালে নামতে। এদিন ঝড়ের গতিবেগ ছিল ৬০ থেকে ৭০ কিলোমিটার। ফলে মাঝ আকাশে এক ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হন যাত্রীরা।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: