সারা বাংলায় হু হু করে বাড়ছে করোনার সংক্রমন, ভ্যাক্সিন নিলেও মানতে হবে সতর্কতা বিধি, কালনাতে করোনার মৃত দেহ ঘিরে অশান্তি

HnExpress নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা ঃ গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৯৫ হাজার ৪১ জন। এই বৃদ্ধির জেরে করোনায় আক্রান্তের মোট সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ৫৬ লাখ ৯ হাজার ৪ জন। আমেরিকার পর ভারত এখন দ্বিতীয় দেশ, যেখানে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা লাগাতার ২ লাখের গণ্ডি পেরিয়ে যাচ্ছে। প্রায় ৩ লাখের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছে মারণ সংক্রমণ। আমেরিকার দ্বিতীয় ঢেউতেও দৈনিক এত সংখ্যক মানুষ আক্রান্ত হয়নি বলে জানা গেছে।

মঙ্গলবার বাংলায় ৯,৮১৯ জনের দেহে করোনা সংক্রমণ মিলেছে। যার ফলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৬,৭৮,১৭২ জন। এদিন ভাইরাসের থাবায় প্রান হারিয়েছেন ৪৬ জন। যার ফলে মোট মৃত্যু বেড়ে হয়েছে ১০,৬৫২। সুস্থতার হার নেমেছে ৯০ শতাংশের নীচে। সুস্থ হয়েছে ৪,৮০৫ জন। এদিন কলকাতায় আক্রান্ত হয়েছে ২,২৩৪ জন। এছাড়া ১,৯০২ জন আক্রান্ত হয়েছেন উত্তর ২৪ পরগনায়। 

ভারত বায়োটেকের চেয়ারম্যান এবং ম্যানেজিং ডিরেক্টর কৃষ্ণা ইল্লা জানিয়েছেন, ইনজেকটেবল ভ্যাকসিন শুধুমাত্র ফুসফুসের নিম্নাংশকেই সুরক্ষিত করে, উর্ধ্বাংশকে নয়। সেক্ষেত্রে করোনা টিকার দু’টি ডোজ নেওয়ার পরেও সংক্রামিত হওয়ার সম্ভাবনা পুরোপুরি উড়িয়ে দেওয়া সম্ভব নয়। তিনি আরও বলেন, টিকা নেওয়ার পরেও মাস্ক পরা থেকে শুরু করে কোভিড সম্পর্কিত যাবতীয় সতর্কতাবিধি মেনে চলতে হবে। ইতিমধ্যেই কালনাতে করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃ্ত্যু হওয়া এক ব্যক্তির  দেহকে প্রায় ১২ ঘণ্টা আগলে বসে ছিলেন পরিজনরা।

প্রশাসনের কোনও দেখা মেলেনি বলেই তাদের অভিযোগ। এবার সেই একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কোলাঘাট ব্লকের বড়িশা এলাকায়। কার্যত প্রশাসনের অবহেলাতে দেহ সৎকারকে ঘিরে ব্যাপক টালবাহানার অভিযোগ উঠল। বুধবার দুপুর পর্যন্ত প্রশাসনের কারোর দেখা মেলেনি বলেই অভিযোগ মৃতের পরিবারের। পরিজনদের দাবি ঘণ্টার পর ঘণ্টা ধরে সংক্রমিত দেহটি এমনই পড়েছিল। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাদের কাছে গিয়েও তার সুরাহা মেলেনি। 

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: