ফের সংক্রমণে মৃত্যু মহারাষ্ট্রে, ভারত তথা বাংলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে

HnExpress ২২শে মার্চ, ইন্দ্রানী সেনগুপ্ত ঃ দেশে ফের সংক্রমণে মৃত্যু। আজ রবিবার মহারাষ্ট্রের এক ৫৬ বছরের ব্যাক্তির মৃত্যু হল করোনা ভাইরাসে। ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে, এই মুহুর্তে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হলো ৩৪১ জন। একই ভাইরাসে মৃত্যু হল পাটনার এক যুবকেরও। আর এই নিয়ে দেশে মৃতের সংখ্যা এক দুই তিন করে এসে দাঁড়ালো ৬ এর কোঠায়। আর করোনার থাবায় মহারাষ্ট্রে এই নিয়ে মৃত্যু হল ২ জনের এবং আক্রান্তের সংখ্যা ৭৪।

আর সুত্রের খবর অনুযায়ী এই রাজ্যেই আরও ১০ জন এই সংক্রমণে আক্রান্ত হয়েছেন, যার ভিতরে ৬ জন হলেন মুম্বাইয়ের ও ৪ জন পুণেবাসী। এরকম সংকটকালীন পরিস্থিতিতে করোনা মোকাবিলায় লকডাউন করল মহারাষ্ট্র, রাজস্থান ও পাঞ্জাব। আর আংশিক ভাবে লকডাউন করা হলো বিহার ও ওড়িশায়। অন্যদিকে করোনা মোকাবিলার ক্ষেত্রে জারি হলো নতুন পরীক্ষা বিধি ICMR। এই বিধিতে বলা হয়েছে যে,সর্দি, কাশি, জ্বর বা শ্বাসকষ্ট দেখা গেলেই অতিশীঘ্র পরীক্ষা করাতে হবে।

আর কোনোরকম উপসর্গ দেখা যাক বা না যাক, করোনা আক্রান্তের সংস্পর্শে এলেই তাকে বাধ্যতামূলক পরীক্ষা করতেই হবে। কারণ দেশে তথা বাংলায় সংক্রমণ বাড়ছে প্রায় ঘন্টায় ঘন্টায়। তাই এই সতর্কতা জারি করা হলো। আর দেশে এই নতুন নির্দেশিকা জারি করলেন ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ। এরই পাশাপাশি বাংলা তথা সারা দেশে করোনা মোকাবিলায় আজ রাত ১২টা থেকে ৩১শে মার্চ পর্যন্ত প্যাসেঞ্জার লোকাল ট্রেন, ভিন্ন রাজ্য থেকে আসা দুরপাল্লার ট্রেন সহ মেট্রোরেল এর সমস্ত ট্রেন বাতিল কার্যকরী করল রেলমন্ত্রক।

কারণ দিনের দিন হু হু করে বাংলাতেও বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। গতকাল রাজ্যে চতুর্থ করোনায় আক্রান্ত দমদমের বাসিন্দা ৫৭ বছর বয়সী এক বৃদ্ধ গুরুতর অবস্থায় ভেন্টিলেশনে ভর্তি হয়ে চিকিৎসারত। তিনি শুকনো কাশি ও শ্বাসকষ্ট জনিত সমস্যা নিয়ে ১৩ই মার্চ ভর্তি হন সল্টলেকের একটি বেসরকারি হাসপাতালে। কিন্তু তিন দিন ধরে চিকিৎসা চলার পরেও শ্বাসকষ্ট না কমায় তার লালারসের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয় এসএসকেএমে।

পরীক্ষার রিপোর্টে পজিটিভ কোভিড-১৯ পাওয়া যায়। গতকাল শ্বাসকষ্ট প্রচন্ড পরিমাণে বেড়ে যাওয়ায় তাঁকে ভেন্টিলেশনে নেওয়া হয়। প্রসঙ্গত, জানা যাচ্ছে ওই ব্যাক্তির কোনো ভ্রমণ ইতিহাস নেই। খুব সাম্প্রতিক তিনি কোনো বিদেশ সফরেও যাননি। বেসরকারি হাসপাতাল সুত্রের স্বাস্থ্য ভবনকে জানানো হয়েছে যে আশংকাজনক অবস্থায় বৃদ্ধকে রাখা হয়েছে আইসি সি ইউ এর আসোলেশনে। চলছে সাধ্যমতো চিকিৎসা।

 

Leave a Reply

%d bloggers like this: