রাজ্যে ঘূর্ণাবর্তের জেরে বৃষ্টির সতর্কতা জারি করল হাওয়া অফিস



HnExpress ওয়েদার রিপোর্ট ঃ উত্তর-পূর্ব বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত মৌসুমি অক্ষরেখা, যা দীঘার উপর দিয়ে প্রভাবিত হচ্ছে। আর যার জেরেই উত্তর পূর্ব বঙ্গোপসাগরে তৈরি হয়েছে একটি ঘূর্ণাবর্ত। সপ্তাহের শুরুতেই ঘূর্ণাবর্তের দাপটে রাজ্যে বৃষ্টির পূর্বাভাস দিল হাওয়া অফিস। আবহাওয়া সুত্রে খবর, প্রচুর পরিমাণে জলীয় বাষ্পও প্রবেশ করছে বাংলায়। আগামী ২৪-৪৮ ঘণ্টায় এর প্রভাবে বজ্রগর্ভ মেঘ হতে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে আলিপুর হাওয়া অফিস।

বৃষ্টির পাশাপাশি দক্ষিণবঙ্গের কলকাতা ও পার্শ্ববর্তী এলাকাগুলিতে বাড়বে তাপমাত্রা পরিমাণও। আকাশ থাকবে আংশিক মেঘাছন্ন৷ এরই পাশাপাশি বজায় থাকবে আর্দ্রতাজনিত অস্বাভাবিক অস্বস্তি। নিম্নচাপের প্রভাবে বৃষ্টি হবে উপকূলের উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা সহ পূর্ব মেদিনীপুরে। যদিও ঝাড়গ্রাম, পশ্চিম মেদিনীপুর, হাওড়া, হুগলি ও নদিয়াতেও আংশিক বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।



আগামী ৪৮-৭২ ঘণ্টার মধ্যে কলকাতা ও তার পার্শ্ববর্তী এলাকায় বৃষ্টির পরিমাণ আরও বাড়ার পূর্বাভাস দিল হাওয়া অফিস৷ কোথাও কোথাও রোদ উঠলেও আর্দ্রতা জনিত অস্বস্তি বাড়বে পাল্লা দিয়ে৷ এদিকে নদী-সমুদ্র বেষ্টিত উপকূলবর্তী এলাকায় জারি হয়েছে চরম সতর্কতা। মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। মঙ্গলবার থেকে বৃষ্টি বাড়বে উত্তরবঙ্গেও, এমনটাই পূর্বাভাস হাওয়া অফিস সুত্রে।

অন্যদিকে উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ি ও কোচবিহার জেলায় বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। মঙ্গলবার দার্জিলিং, কালিম্পং, জলপাইগুড়ি, উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর এবং মালদাতে কয়েক-পশলা ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাসও রয়েছে।

আজ কলকাতা ও শহরতলিতে দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৫.১° ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে ৩° ডিগ্রি বেশি। দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৮° ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে ২° ডিগ্রি বেশি। বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ ছিল সর্বাধিক ৯৭% ও ন্যূনতম ৬০%।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: