খড়দহের একটি ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার ট্রাফিক ওসির ছেলের নলি কাটা লাশ



HnExpress নিজস্ব প্রতিনিধি, খড়দহ ঃ খড়দহের একটি ফ্ল্যাট থেকে অবসরপ্রাপ্ত এক ট্রাফিক ওসির ছেলের গলার নলি কাটা মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। গলার নলির সাথে সাথে হাতের শিরা কাটার দরুন মেঝেতে রক্তাক্ত অবস্থায় পাওয়া যায় তাঁকে। মৃতদেহের পাশেই পড়ে ছিল একটি ধারালো রক্তাক্ত ছুরি। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান এই ছুড়ি দিয়েই কাটা হয়েছে হাতের শিরা ও গলার নলি। পুলিশ মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানোর সময় একটি সুইসাইডও নোট খুঁজে পায়। যদিও রিপোর্ট না আসা অব্দি মৃত্যুর আসল কারণ ধোঁয়াশায়।

পুলিশের প্রাথমিক সূত্রে জানা গেছে, বছর চব্বিশের এই মৃত ব্যক্তির নাম শ্রেয়ন সেন। যিনি ইংরেজিতে এমএ করছিলেন। বাবা রাজ্য ট্রাফিক পুলিশের অবসরপ্রাপ্ত ওসি। খড়দহ থানা এলাকায় বিটি রোড লাগোয়া আদর্শ পল্লীতে তাদের নিজস্ব ফ্ল্যাট। এই অ্যাপার্টমেন্ট এর তিনতলার ফ্ল্যাটেই বাবা, মা ও দাদার সঙ্গে থাকতেন শ্রেয়ন। জানা গিয়েছে, শনিবার সন্ধ্যায় দাদার সঙ্গে বাইরে থেকে চা খেয়ে বাড়ি ফেরেন শ্রেয়ন। তারপরই নাকি নিজের ঘরে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দেয় সে।



কিন্তু অনেকক্ষণ ধরে ঘরের দরজা বন্ধ থাকায় বাড়ির লোকের সন্দেহ হয়। এরপরই তাঁরা ডাকাডাকি শুরু করলেও ওপার থেকে দরজা খোলে না শ্রেয়ন। যথারীতি বাড়ির লোক দরজা ঠেলে ঘরে ঢুকতেই দেখেন যে, গলার নলি ও হাতের শিরা কাটা অবস্থায় মেঝেতে পরে আছে শ্রেয়নের নিথর দেহ। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছান খড়দহ থানার পুলিশ। শ্রেয়ন এর মৃতদেহের পাশে একটি সুইসাইড নোট পাওয়া গেলেও সম্পূর্ণ বিষয়টিকে আত্মহত্যা বলে মানতে নারাজ তদন্তকারী অফিসারদের।

পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে এই বিষয়ে নিয়ে উঠে এসেছে একাধিক প্রশ্ন! একজন ভিক্টিম নিজেই নিজের হাতের শিরা কাটলে সে কি করে আবার নিজের গলার নলি কাটতে পারে? বা গলার নলি কাটার পরে সে হাতের শিরাই বা কি ভাবে কাটতে পারে? এ বিষয়ে পুলিশ আধিকারিকরা জানিয়েছেন যে, এটা শুধুমাত্র আত্মহত্যা নাকি পরিকল্পিত ভাবে খুন, এ বিষয়ে খতিয়ে দেখচ্ছেন তাঁরা। অথবা এই ঘটনার পিছনে অন্য কোন বড় রহস্য লুকিয়ে আছে? ময়নাতদন্ত এর রিপোর্ট আসার পরেই সে বিষয় নিশ্চিত করে কিছু জানা যাবে।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: