একজন রূপান্তরকামী মহিলা আর একজন পুরুষের জীবন কাহিনী নিয়ে শুরু হতে চলল বাংলা চলচ্চিত্র “চুপ”

HnExpress ৭ই জানুয়ারী, নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা ঃ চুপ হল, একটা নিঃশর্ত বন্ধুত্বের গল্প। দুই বন্ধুর বন্ধুত্বের সংজ্ঞা কোনো সময়, বয়স বা লিঙ্গ ভেদ মানে না। একজন রূপান্তরকামী মহিলা আর একজন পুরুষ, সমাজ এদেরকে এই নামে চিনলেও এরা একে অপরকে বন্ধু বলেই চেনে। আর সেই রূপান্তরকামী মহিলা ও একটি পুরুষের জীবন কাহিনী নিয়ে শুরু হতে চলল এক ভিন্ন স্বাদের স্বল্প বাজেট ও স্বল্প দৈর্ঘ্যের বাংলা চলচ্চিত্র “চুপ”।

কাহিনির সুত্রপাত, সামাজিক টানাপোড়েন পেরিয়ে একজন রূপান্তরকামী মহিলা যার কাছে বন্ধুত্বের হাতটা পায়, সেই হাতটা, সেই বন্ধুত্বটাও যখন আবার সেই সামাজিক অবক্ষয়ের মধ্যে জড়িয়ে পড়ে তখন তাদের বন্ধুত্ব টিকিয়ে রাখার জন্য যে সামাজিক লড়াই শুরু হয়, সেটা নিয়েই অসাধারণ অভিনয়ের মাধ্যমে বোঝানো হয়েছে পুরো সিনেমাটা জুড়ে। দুই বন্ধুর ব্যক্তিগত জীবনের যে ওঠা নামা, চড়াই-উতরাই, মানসিক ভাবে পারিবারিক চাপ, প্রেমের ব্যর্থতা সবকিছুই তারা স্বীকার করে নেয় শুধু এই আন্তরিক বন্ধুত্বটা টিকিয়ে রাখার জন্য।

একজন রূপান্তরকামী মহিলা তথাকথিত সমাজের সর্বস্তরের মানুষের সাথে রীতিমতো যুদ্ধ করে নিজেকে খুঁজে পায় যে বন্ধুর কাছে, সে একজন সেই সমাজেরই পুরুষ। কিন্তু এই দুজনের বন্ধুত্ব সমাজের চোখে অসম, কারণ সাধারণ চোখে লিঙ্গ বৈষম্য মানেই যৌনতার টানে শারীরিক হাতছানি, আর সেখানে তো একজন রূপান্তরকামী মানুষের ক্ষেত্রে সামাজিক দৃষ্টিটাই যৌনতা ঘেরা।

তাই এই অসমতা কিভাবে তাদেরকে গ্রাস করে এবং সেখান থেকে বেরিয়ে আসে মৃত্যুই শেষ পথ। আর সামাজিক চাপে যখন সেই মর্মান্তিক মৃত্যু ঘটে তখন ঠিক তখনই রাষ্ট্র LGBT কে সমর্থন করে, কিন্তু ততক্ষনে একটা মূল্যবান সুন্দর জীবনের মৃত্যু ঘটে গেছে, আর ওদের সেই আন্তরিক বন্ধুত্বটাও তখন বাকরুদ্ধ, হুমম সবটা চুপ।

সমাজের এই অন্ধকার দিকে থাকা ও সমাজ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়া সেই সমস্ত মানুষদের যন্ত্রণাদায়ক জীবনযাত্রার বহিঃপ্রকাশ নিয়েই পথ চলা শুরু করতে চলেছে প্যাহেচান প্রোডাকশন নিবেদিত যুগ্ম প্রযোজক কৌশিক মন্ডল ও অমিত পাল এবং পরিচালক বাবাই সেনের “চুপ”। এই চলচ্চিত্রের মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করছেন সর্বপ্রথম একজন প্রকৃত রূপান্তরকামী সুজি ভৌমিক এবং পুরুষ বন্ধুর ভূমিকায় থাকছেন অমিতাভ ভট্টাচাৰ্য, আরেকজন রূপান্তরকামী রণদীপ সরকার প্রমুখ।

Leave a Reply

%d bloggers like this: