নভেম্বর বিপ্লবের ১০৩ তম বর্ষপূর্তি উদযাপন জলপাইগুড়ি জেলা জুড়ে

HnExpress ১০ই নভেম্বর, অরুণ কুমার, জলপাইগুড়ি ঃ শ্রমজীবি মানুষের কর্তব্য ও নভেম্বর বিপ্লবের প্রাসঙ্গিকতা সারা পৃথিবীর মূক্তিকামী জনগন পুঁজিবাদী ব্যবস্থার বিরুদ্ধে যাওয়ার প্রবনতা আবার ক্রমশ: আজকের প্রেক্ষাপটে দ্রুত মাত্রা পেতে আরম্ভ করেছে, এই বার্তাকে জোরালো ভাবে তুলে ধরলেন বক্তারা। এভাবেই ঐতিহাসিক নভেম্বর বিপ্লবের ১০৩ তম বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান যথাযথ মর্যাদায় পালিত হলো গোটা জলপাইগুড়ি জেলা জুড়ে। এদিন জেলা শহরে সকাল থেকেই বিভিন্ন শাখায় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে উদযাপন শুরু হয়।

এরপর এরিয়া দপ্তরে পতাকা উত্তোলন এবং সংক্ষিপ্ত সভা হয়। তারপর জেলা দপ্তরে পতাকা উত্তোলন করলেন জেলা সম্পাদক সলিল আচার্য। এদিন জেলা দপ্তরে নভেম্বর বিপ্লবের প্রাসঙ্গিকতা নিয়ে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন সলিল আচার্য। আজকের দিনে শ্রমজীবি মানুষের কর্তব্য তুলে ধরেন জেলা সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য জিয়াউল আলম। নভেম্বর বিপ্লবের এই কর্মসূচীতে উপস্থিত ছিলেন পার্টির কেন্দ্রিয় কমিটির সদস্য মৃদুল দে। নভেম্বর বিপ্লবকে কেন সারা পৃথিবীর মূক্তিকামী জনগন এত শ্রদ্ধায় স্মরণ করে, তা তুলে ধরেন মৃদুল দে।

তিনি তাঁর বক্তব্য শুরুর আগে তাঁকে জেলার পক্ষ থেকে উত্তরীয় পড়িয়ে শ্রদ্ধা জানান জিয়াউল আলম। পুঁজিবাদী ব্যবস্থায় মানুষের প্রান ওষ্ঠাগত, পুঁজিবাদ তার সংকটে নিমজ্জিত। এরকম একটি অবস্থায় করোনা মহামারি এবং অপরিকল্পিত লকডাউনে মানুষের জীবনে চরম আঘাত নেমে এসেছে। এই সময়ে নভেম্বর বিপ্লবের শিক্ষা গ্রহন করে দুনিয়ার মজদুরকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে লড়াই করতে হবে বলে মৃদুল দে তাঁর বক্তব্যের মধ্য দিয়ে তুলে ধরেন। কর্মসূচীটি উপস্থাপনা করেন জেলা সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য কৌশিক ভট্টাচার্য্য।

এদিন সভায় উপস্থিত ছিলেন বিপুল সান্যাল, বিপ্লব ঝা, প্রদীপ দে, ননীগোপাল মুখোটি সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। ভারতীয় গণনাট্য সংঘের সদর শাখার পক্ষ থেকে সভার শেষে বর্তমান সময়ের ওপর একটি নাটক সমবেত সাধারন মানুষের সামনে উপস্থাপন করে। সাধারন মানুষ গোটা কর্মসূচীটিতে উপস্থিত থাকার মধ্য দিয়ে কর্মসূচী এক অন্য মাত্রা পায়।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: