Sun. Dec 8th, 2019

শুরু হয়ে গিয়েছে রাজ্য ডাক প্রদর্শনী ‘একলা চলো রে‘

HnExpress অশোক সেনগুপ্ত, কলকাতা ঃ “টলস্টয় ফার্ম ওয়াজ এ ফ্যামিলি ইন হুইচ আই অকুপায়েড দি প্লেস অফ দি ফাদার“। লিখে ছিলেন মহাত্মা গান্ধী। দক্ষিণ আফ্রিকার লিন্ডেনে ১৯১০-১৯১৩ ছিল তাঁর এই অনন্য আশ্রম। শতবর্ষ অতিক্রান্ত গান্ধীর স্মৃতিবিজরিত অধুনাবিস্মৃত এই কর্মপিঠকে ফের প্রাসঙ্গিক করে তুলল ভারতের ডাকবিভাগ। তারই সাথে সাথে শুরু হয়ে গিয়েছে রাজ্য ডাক প্রদর্শনী ‘একলা চলো রে‘।

শনিবার নবম ‘স্টেট ফিলাটেলিক এক্সিবিশন’ -এর উদ্বোধন করেছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর। এটি মহাত্মা গান্ধীর দেড়শ বছর উপলক্ষে তাঁর নামে উৎসর্গ করা হয়েছে। প্রদর্শনীর শিরোনাম রাখা হয়েছে ‘একলা চলো রে‘। চলবে ২১ নভেম্বর পর্যন্ত। এই উপলক্ষে এ দিন অপর একটি অনুষ্ঠানে কলকাতা জিপিও -তে উদ্ঘাটন হয় গান্ধী গ্যালারির।

শনিবার ‘ইয়ং ইন্ডিয়া’ নামে বিশেষ ডাক কভারের প্রকাশ করেন রাজ্যপাল। এছাড়া অ্যাকাডেমী অফ ফাইন আর্টসে সকালে ছিল পড়ুয়াদের বসে আঁকো প্রতিযোগিতা। পঞ্চম থেকে অষ্টম শ্রেণী এবং নবম থেকে দ্বাদশ— দুই পর্যায়ে আঁকার বিষয় মাহাত্মা গান্ধীর কোলাজ। এখানে প্রদর্শিত ডাকসামগ্রির মধ্যে প্রায় অর্ধেক আমন্ত্রিত এবং গান্ধীজী-বিষয়ক। মহাত্মার ওপর বিভিন্ন সময়ে প্রকাশিত ডাকটিকিট, ফার্স্ট ডে কভার, স্পেশাল কভার দেখার সুযোগ পাওয়া যাচ্ছে এখানে।

দুপুরে জিপিও-তে এক অনুষ্ঠানে মহাত্মার চিত্র উন্মোচন ছাড়াও তাঁর ছবি-সহ ব্যাজ লাগানো
জ্যাকেট প্রকাশ করেন সিপিএমজি। রবিবার ‘টলস্টয় ফার্ম’ নিয়ে একটি বিশেষ ডাক কভার প্রকাশ করলেন চিফ পোস্ট মাস্টার জেনারেল (সিপিএমজি-বেঙ্গল সার্কেল) গৌতম ভট্টাচার্য।

গান্ধীজীর ওপর স্পেশাল কভার, লেটার বক্স পেন্টিং, ট্রামওয়েজের বিবর্তন, বাংলার কবিদের ওপর স্পেশাল কভার প্রকাশ, বক্তৃতা— সব মিলিয়ে আকর্ষণ তৈরি করেছে নবম রাজ্য ফিলাটেলিক প্রতিযোগিতা ‘একলা চলো রে’-র রবিবারের অনুষ্ঠান।

রবিবার একটি ট্রাম সাজানো হয় ডাকটিকিট, ফার্স্ট ডে কভার প্রভৃতি দিয়ে। ময়দানে ওই ট্রামে ‘লিগাসি অফ ট্রামওয়েজ’ নিয়ে একটি বিশেষ কভার প্রকাশ করছেন চিফ পোস্ট মাস্টার জেনারেল (সিপিএমজি-বেঙ্গল সার্কেল) গৌতম ভট্টাচার্য। সেখানে ভাষণ দেবেন রাজ্যের পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী।

জীবনানন্দ দাস, সুধীন্দ্রনাথ দত্ত, প্রেমেন্দ্র মিত্র— কালজয়ী এই তিন কবির ওপর স্পেশাল কভার প্রকাশ আজ। সন্ধ্যায় ওই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণ দেবেন কবি জয় গোস্বামী। প্রথম দিন, মানে শনিবার সন্ধ্যায় অ্যাকাডেমীতে প্রদর্শনী হলে ঋতুপর্ণ ঘোষ এবং সুচিত্রা সেনের ওপর বিশেষ কভার প্রকাশের পাশাপাশি ভাষণ দেন দুই অভিনেত্রী সুদীপ্তা চক্রবর্তী ও মুনমুন সেন এবং চলচ্চিত্র-গবেষক শমীক বন্দ্যোপাধ্যায়।

Leave a Reply

%d bloggers like this: