পুজোর মধ্যে লোকাল ট্রেন চালু করা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সাথে আলোচনায় বসতে চায় রেল কর্তৃপক্ষ

HnExpress ১৬ই অক্টোবর, নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা ঃ রাজ্যে কোভিড পরিস্থিতির মধ্যেই পুজোর সময় লোকাল ট্রেন চালু করতে নবান্নে মুখ্যমন্ত্রীর সাথে আলোচনায় বসতে চায় ইস্টার্ন রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। রেল তরফের আর্জি, রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে বৈঠকের দিনক্ষণ ঠিক করে জানানো হোক, বা একটি ভার্চুয়াল মাধ্যমে আলোচনা করে সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হোক। এদিকে এটাকেই ইস্যু করে রাজ্যের বিরুদ্ধে গড়িমসির তোপ দাগালেন বিরোধী মহল।

তবে তাতে কোনো ভ্রুক্ষেপ না করে শাসক দল জানালেন, যথাযথ বিবেচনার পরেই উপযুক্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। অন্যদিকে, করোনার সংক্রামণ এড়াতে স্বাস্থ্য বিধি ও সতর্কতা মেনে লোকাল ট্রেন চালানো সম্ভব কিনা, সেই প্রসঙ্গে একাংশে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। এ বিষয় প্রাক্তন রেলকর্তা সুভাষরঞ্জন ঠাকুরের মতামত হলো, পুজোর মধ্যে কোনো মতেই ট্রেন চালু করা ঠিক হবে না।

এদিকে চিকিৎসকদের একটা বিরাট অংশ ট্রেন চালুর বিপক্ষে সাবধানতা অবলম্বন করা নিয়ে ও নিরাপত্তার বিষয় রেল কর্তৃপক্ষ এর দিকে প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছেন। গত বুধবার বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায় হাওড়ার পূর্ব রেলের ডিআরএমের সঙ্গে দেখা করে পুজোর আগেই রাজ্যে লোকাল ট্রেন চালু করার দাবি জানান। রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েলের কাছেও পুজোর আগে রাজ্যে লোকাল ট্রেন চালু করার দাবি জানিয়েছেন তিনি।

অপরদিকে, বাংলায় এই উৎসবের মরসুমে স্বাস্থ্য বিধি মানতে কড়া পদক্ষেপ নিতে চলছে রেল কর্তৃপক্ষ। ট্রেনে ‘মাস্ক না পরলেই, অথবা যত্রতত্র কফ-থুতু ফেললেই এবার হবে মোটা অংকের জরিমানা। জরিমানার অন্যথায় ৫ বছর পর্যন্ত জেলও হতে পারে। আর রাজ্যে উৎসবের সময় স্পেশাল ট্রেনে গুলিতে অবশ্যই মানতে হবে সামাজিক দূরত্ব বিধি, কারণ স্পেশাল ট্রেনে ভিড়ের আশঙ্কায় এমন বিজ্ঞপ্তি জারি করা হলো আরপিএফ তরফে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: