Mon. Nov 18th, 2019

বিচারকের চোখে পুজো পরিক্রমা —৩য়

HnExpress অশোক সেনগুপ্ত, উত্তর ২৪ পরগণা ঃ বিচারকের মতামতে, সন্ধানী, নবপল্লী দেখে এলাম টাকি রোড সংলগ্ন শতদলে। সময়ের অভাবে এবং সর্বোপরি বারাসাতের রাস্তায় মাত্রাতিরিক্ত যানজটের ফলে ব্যায়াম সমিতি, পঞ্চপল্লী, বিদ্রোহীকে ফেলেই শতদলে প্রবেশ করতে হল।

অভিমুন্য বধের প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য অর্জুন প্রতিজ্ঞা করে জয়দ্রথকে হত্যা না করতে পারলে তিনি যখন নিজেই আত্মহত্যা করবেন ঠিক করেন, তখন কৃষ্ণ রথের সারথি হয়ে অর্জুনকে প্রতিজ্ঞা রাখতে সাহায্য করেন। পৌরাণিক এই আখ্যান নিয়েই হয়েছে এবারের শতদলের থিম।

উদ্যোক্তা সংগঠনের সভাপতি আশিস বৈদ্য তাঁর ভাষায় জানালেন, অভিমুন্য বধের প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য অর্জুন জয়দ্রথকে হত্যার চেষ্টা করেন। ব্যর্থ হয়ে তিনি আত্মহত্যা করার কথা ভাবেন। কৃষ্ণ সে সময় রথের সারথি হয়ে অর্জুনকে প্রতিজ্ঞাপূরণে সাহায্য করেন।

কালী প্রতিমার একদিকে রামায়ণ, অন্যদিকে মহাভারত— এই দিয়েই মহাকাব্যের খন্ডচিত্র। একদিকে অগস্ত্যমুনি, রাম, লক্ষণ, সীতা। অন্য দিকে কৃষ্ণ, অর্জুন, জয়দ্রথ। মন্ডপসজ্জায় পূর্ব মেদিনীপুরের মা কালী ডেকরেটর্স। আর আলোক সজ্জায় তারা মা ইলেকট্রিকস।

ক্লাবের পরিচালন মন্ডলির সদস্য শ্যামজিৎ পোদ্দার, যিনি গতবারের পুজোর সম্পাদক ছিলেন। তিনি জানান, বারাসতে দু’শতাধিক বড় কালীপুজোর মধ্যে খুব বড় করে পুজো হয় মোটা ১২টা। আর সেই প্রথম পাঁচটির অন্যতম হলো এই শতদল।

গত বছর সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে পুজোর বাজেট ছিল প্রায় ৩০ লক্ষ টাকা। এবার সেই বাজেট কমে হয়েছে ২০ লক্ষ টাকার মত। জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, শান্তনু সেন, ব্রাত্য বসু— মন্ত্রী-সাংসদরা এক একদিন এক একজন করে আসছেন। ২৭ থেকে ৩০ অক্টোবর প্রতিমা থাকবে। ৩১শে হবে প্রায় ১০ হাজার লোকের পংক্তিভোজন।

(ক্রশশঃ)

Leave a Reply

%d bloggers like this: