করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে নাগরিক সচেতনতায় আই.এম.এ -র পুস্তিকা প্রকাশ ও মাস্ক বিতরণ

HnExpress ১৮ই অগাস্ট, জয় গুহ, উত্তর ২৪ পরগণা ঃ জেলায় সর্বত্র বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। ফলে মাস্ক ব্যবহার ও সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখার উপরে বিশেষ ভাবে জোর দেওয়া হয়েছে। আর এই সংক্রমণ প্রতিরোধে নাগরিক সচেতনতায় করোনা বিশ্ব মহামারী সম্পর্কে কিছু প্রয়োজনীয় তথ্য সম্বলিত “সমাজকে সঠিক বার্তা দিন” পুস্তিকা প্রকাশ করল ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল ত্রসোসিয়েশন (আই.এম.এ) নিউ বারাকপুর মধ্যমগ্রাম শাখা।

সম্প্রতি ৭৪ তম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ছয় পাতার সামাজিক বার্তার এই বইটি প্রকাশিত করা হয়। স্হানীয় নাগরিকদের হাতে বইটি বিলি করেন চিকিৎসকেরা। রোগটির উপসর্গ, কি থেকে সংক্রমণ প্রতিরোধ করা যায়, নানান ধরনের পরীক্ষা নিরিক্ষা, চিকিৎসা পদ্ধতি, হোম আইসোলেশনের সাবধানতা, ইমিউনিটি বাড়াতে কি কি করনীয়, এসব বিস্তারিত ভাবে লিপিবদ্ধ করা রয়েছে এই বইয়ে।

এছাড়াও আই.এম.এ’র চিকিৎসকেরা এদিন এলাকার পথচলতি মানুষদের মুখে মাস্ক পরিয়ে নাগরিকদের সচেতন করেন। নিউ বারাকপুর নেতাজী সুভাষ রোডে আই.এম.এ’র নিজ ভবনে কোভিড নিয়ে দীর্ঘ আলোচনা করেন কলকাতা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রাক্তন অধ্যক্ষ অধ্যাপক ড: আশীষ কুমার বসু ও আই.এম.এ নিউ বারাকপুর মধ্যমগ্রাম শাখার সভাপতি ড: দেবতোষ দাস।

করোনার মত আতিমারীর হাত থেকে সুস্হ থাকতে হলে সচেতনতা এবং তার সুরক্ষায় মাস্ক হল বাধ্যতামূলক এবং সামাজিক দুরত্বও বজায় রাখতে বললেন তিনি। করোনার বিরুদ্ধে প্রথম সারিতে থেকে লড়াই করছেন চিকিৎসক সহ স্বাস্হ্যকর্মী, নার্স এবং অ্যাম্বুলেন্স চালকরা। নিউবারাকপুরের কোভিড বীর যোদ্ধা বিশেষজ্ঞ ড: পংকজ কুমার অধিকারী এদিন বললেন যে, সাধারন মানুষেরা করোনা ভাইরাস নিয়ে অযথা আতঙ্কিত হবেন না।

সঠিক গাইডলাইন দিয়ে আই.এম.এ’র পুস্তিকা প্রকাশ করা হয়েছে। রাজ্যে এখনও পর্যন্ত ২৪ জন করোনা আক্রান্ত চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে। মাত্র ২৪ ঘন্টায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৩৫ জন। প্রান হারিয়েছেন ৬০জন। ২৪ ঘন্টায় ৩১৩১৭ টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। রাজ্যে সুস্হতার হার ৭৩. ৫৭ শতাংশ। এদিনের পুস্তক প্রকাশনী অনুষ্ঠানে উপস্হিত ছিলেন আই.এম.এ’র সম্পাদক ড: অপুর্ব পাঁজা, ড: অরুন কুমার হাজরা, ড: পীযূষ পানি ভৌমিক, ড: নিতাইপদ রায়, ড: অসিত চৌধুরী, ড: সুকুমার বিশ্বাস সহ স্হানীয় নাগরিকরা।

Leave a Reply

%d bloggers like this: