স্বাভাবিক হচ্ছে জনজীবন,
উত্তরে ভিড় জমছে পর্যটকদের,
ছন্দে ফিরছে ডুয়ার্স

HnExpress ৩০শে অক্টোবর, অরুণ কুমার, ডুয়ার্স ঃ করোনা আতঙ্ক কাটিয়ে স্বাভাবিক ছন্দে ফিরছে ডুয়ার্সের বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্র গুলো। স্বাভাবিক হচ্ছে জনজীবন। ময়নাগুড়ি ব্লকের গরুমারা জঙ্গল ঘেষা রামশাই মেদলা নজর মিনারে আস্তে আস্তে ভিড় জমছে পর্যটকদের। বন্যপ্রাণী দেখতে দূর দূরান্ত থেকে আসছেন পর্যটকেরা। বছরের বারো মাসই পর্যটকদের জন্য ময়নাগুড়ি ব্লকের গরুমারা জঙ্গল ঘেষা এই মেদলা নজর মিনার খোলা থাকে।

বর্ষার মরশুমে তিনমাস জঙ্গল বন্ধ থাকলেও দূর দূরান্ত থেকে পর্যটকরা এখানে বেড়াতে আসেন বন্যপ্রাণী দেখার জন্য। সল্ট পিটে, বাইসন, গন্ডার, বাঘ, হাতি, হরিণের দলকে ক্যামেরা বন্দি করতে সবসময়ই উপচে পরে মানুষের ঢল। তবে টানা সাতমাস জঙ্গল বন্ধের পরে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হচ্ছে উত্তরের পর্যটন কেন্দ্রগুলি। লাটাগুড়ির এক টুরিস্ট গাইড মধু কৌড়া জানান, পুজোর পর থেকেই পর্যটকের আনাগোনা শুরু হয়েছে।

এতদিন সেভাবে মানুষজনের আনাগোনা না থাকলেও এখন ভিড় বাড়ছে। বাইরে থেকেও প্রচুর মানুষ আসছে বলে জানান তিনি৷
পর্যটন ব্যবসায়ীরা জানান, অনেকেই ডুয়ার্সে আসা শুরু করেছেন। মেদলা নজর মিনার ময়নাগুড়ি ব্লকের একটি অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র৷ এরপর রেল চলাচল স্বাভাবিক হয়ে গেলে আরও ভিড় বাড়বে বলেই আশাবাদী তিনি৷
বহরমপুর থেকে আসা এক পর্যটক রতন সেনগুপ্ত জানান, দীর্ঘদিন ঘরবন্দি থাকার পরে এখানে এসে বেশ ভাল লাগছে।

গরুমারার সাউথ রেঞ্জের রেঞ্জার অফিসার অয়ন চক্রবর্তী জানান, বিগত কয়েকদিন ধরে মেদলায় পর্যটকদের বেশ ভিড় বাড়ছে। তবে করোনার সমস্ত সতর্কতা বিধি মেনেই পর্যটকেরা জঙ্গলে বেড়াতে যাচ্ছেন বলে তিনি জানালেন। অর্থাৎ এভাবেই করোনা পরবর্তীকালে সবরকম সতর্কতা নিয়ে স্বাভাবিক ছন্দে ফিরতে আরম্ভ করেছে উত্তরবঙ্গের ডুয়ার্সের আকর্ষণ পর্যটনের পরিমণ্ডল।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: