“পুজোর প্রাক্কালে বস্তি এলাকায় শিশুদের বস্ত্র বিতরণ করলো বাম ছাত্র সংগঠন”

HnExpress ২১শে অক্টোবর, অরুণ কুমার, জলপাইগুড়ি ঃ মঙ্গলবার বিকেলে বাম ছাত্র সংগঠন এসএফআই এর ৫০তম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে এসএফআই জেলা দপ্তরের সামনে থেকে উৎসবের প্রাক্কালে জলপাইগুড়ি শহর সংলগ্ন এলাকার বস্তিবাসী শিশুদের মধ্যে বস্ত্র বিতরণ করা হল। এদিকে প্রায় ৪০০ বস্তিবাসী শিশুদের মধ্যে বস্ত্র বিলি করলেন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও প্রাক্তনীরা। আগে থেকে বাড়ি বাড়ি গিয়ে কুপন বিলি করা হয়। তারপর শিশুদের বয়স, জামার মাপ নির্দিষ্ট করে প্রত্যেকের হাতে সেইমত বস্ত্র তুলে দেওয়া হয়।

এই কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন ছাত্র নেতা অরিন্দম চক্রবর্তী, শুভঙ্কর চ্যাটার্জী, বিপ্লব ঝা, শুভাশিস সরকার, দীপশুভ্র সান্যাল, প্রদীপ কর্মকার, প্রবীর দাসগুপ্ত, নীলাঞ্জন নিয়োগী, মিঠুন চৌধুরী, পিনাকী সিকদার। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বর্তমান ছাত্র আন্দোলনের নেতৃত্ব রাজ্য কমিটির সদস্য শুভঙ্কর গুহ রায়, কমরেড অনুভব দে, জেলা সম্পাদক প্রভাকর সরকার, অনির্বাণ দে, অর্ঘ্যজ্যোতি সেনগুপ্ত, শুভম ঠাকুর সহ আরও অনেকেই।

এই বস্ত্র বিতরণ কর্মসূচী দেখে বহু মানুষ রাস্তায় এসে ভিড় জমায়। ফলে একসাথে বহু মানুষের সমাগমে লম্বা লাইন পড়ে যায়। জানা গিয়েছে, এই অবস্থায় পুলিশ এসে কর্মসূচিটি সংক্ষেপে করতে বলায় বাক-বিতণ্ডার সৃষ্টি হয়। বর্তমান ছাত্র আন্দোলনের নেতৃত্বের পাশে এসে দাঁড়ান প্রাক্তনীরা। কিছুক্ষণ বচসা চলার পর প্রশাসন পিছু হটতে বাধ্য হয়। তারপর এসএফআই এর নেতৃত্ব সুশৃংখলভাবেই লাইন করে একে একে প্রত্যেকটি শিশুর হাতে বস্ত্র তুলে দেওয়া হয়।

এদিন জেলা সম্পাদক প্রভাকর সরকার বলেন যে, এসএফআইয়ের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে আমাদের একটু অন্যরকম কর্মসূচির ভাবনা ছিল। কিন্তু এই অতিমারির সময় উৎসবের প্রাক্কালে আমরা কিছু সামাজিক দায়িত্ব তুলে নিয়েছি আমাদের ছোট্ট কাঁধে। আমরা ছাত্র, তাই আমাদের পকেটে পয়সা নেই, আমরা এই ভাবনাই প্রাক্তনীদের সাথে শেয়ার করায় আমাদের প্রাক্তনীরা অর্থ সাহায্য করেন।

মূলত তাদের পাশে পেয়েই আমরা এই কর্মকাণ্ড সাফল্যমণ্ডিত করতে পেরেছি। এই অতিমারিতে বহু মানুষ অসুবিধায় আছেন। আমরা আমাদের সীমিত ক্ষমতা নিয়ে বস্তিবাসী শিশুদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছি মাত্র। এদিন প্রায় ৪০০ শিশুর হাতে আসন্ন উৎসবের আগে নতুন বস্ত্র তুলে দিতে পেরে আমরা আনন্দিত। আমরা চাই ক্লাবগুলোকে টাকা না দিয়ে সরকারও বস্তিবাসী শিশুদের হাতে নতুন বস্ত্র তুলে দিক।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: