ফের করোনার জেরে নাইট কার্ফু জারি করল পাঞ্জাব ও কর্ণাটক, আগুন নিয়ে খেলতে পিছপা নয় বাংলার রাজনৈতিক নেতৃত্ব

HnExpress প্রিয়দর্শী সাধুখাঁ, কলকাতা ঃ সালটা ছিল ২০২০। গরমের পর বর্ষা চলে যাবার পর শীত আস্তেই অনেকেই আশংকা করেছিল যে শীতেই মারাত্মক পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হবে বাংলা তথা ভারতবর্ষকে। কারন ঠান্ডা প্রধান দেশগুলিতে যে হারে সংক্রমণ এর ফলে মৃত্যু হার বেড়ে গেছিল, তা দেখে অনেকেই মৃত্যুর দিন গুন ছিল। কিন্তু শীত কালে অস্বাভাবিক ভাবে সংক্রমণের হার কমে গেছিল ভারতে, সাথে মৃত্যু হারও।

ব্রিটেনে নিউ স্ট্রেন তথা বি .১.১.৭ স্ট্রেন নিয়ে এতদিন চিন্তার শেষ ছিল না। করােনার এই নতুন সুপার স্প্রেডার স্ট্রেন ব্রিটেন ছাড়িয়ে ছড়িয়ে পড়েছে ভারত সহ বিশ্বের আরও ৩০টি দেশে। দক্ষিণ ইংল্যান্ডে সংক্রামিত লক্ষাধিক মানুষ। ফের করােনার এক নতুন প্রজাতি চিহ্নিত করলেন ব্রিটেনের বিজ্ঞানীরা। যার নাম সার্স-কভ -২। এই নতুন স্ট্রেনের জন্য সতর্কতা জারি হয়েছে গোটা দেশ জুড়ে। ২০২০ সালটির অন্তিমকালে অনেকেই আশার আলো দেখে ছিল যে, ২০২১ এ অন্তত অনেকটাই করোনার প্রকোপ কমবে।

কিন্তু ২১ এর ফেব্রুয়ারি মাসের শেষ থেকেই আবার সংক্রমণ বাড়তে থাকে। বেশ কিছুদিন আগে রাজ্যে ২১ এর বিধানসভা নির্বাচন শুরু হয়ে গেছে। ইতিমধ্যেই করোনার সংক্রমণের হার বেড়ে যাওয়াতে দিল্লির পর এবার ফের নাইট কার্ফু জারি করল পাঞ্জাব সরকার। করোনা ভাইরাসের নতুন প্রজাতির সংক্রমণের হার এতটাই বেড়ে যাচ্ছে যে বাদ যাবেনা বাংলাও। এই রাত্রিকালীন কার্ফু আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত জারি থাকবে। রাত ৯টা থেকে সকাল ৫টা পর্যন্ত চলবে।

এর পাশাপাশি নিষিদ্ধ করা হয়েছে রাজনৈতিক জমায়েত যা বাংলার রাজনৈতিক নেতাদের শিক্ষানীয়। দিল্লি পাঞ্জাবের পর বাদ যায়নি কর্ণাটকও। অত্যাধিক সংক্রমণের জেরেই কর্ণাটক সরকার রাত্রিকালীন কারফিউ জারি করল যার মেয়াদ আগামী ১০ই এপ্রিল থেকে ২০ এপ্রিল পর্যন্ত। বেঙ্গালুরু, মহীসুরু, মঙ্গলুরু, কলাবাড়াগী, বিদার, তুমকুরু, উদুপি এবং মণিপালে রাত ১০টা থেকে ভোর ৫ টা পর্যন্ত জারি থাকবে নাইট কার্ফিউ। তবে মানুষের দরকারী জিনিস গুলোর কথা চিন্তা করে এই সময়ে ছাড় দেওয়া হবে প্রয়োজনীয় পরিষেবাগুলি।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: