বিজেপির নব-পুরাতন বিবাদ প্রকাশ্যে, নব বিজেপি নেতাদের দুর্নীতিগ্রস্ত বলে পোস্টার দিল গাইঘাটা পুরাতন বিজেপি

HnExpress ২০শে ডিসেম্বর, অরূপ অধিকারী, গাইঘাটা-উত্তর ২৪ পরগনা ঃ বিধানসভা ভোটের আগেই তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করার যেমন হিড়িক পড়েছে, ঠিক তেমনই বিজেপির মধ্যেও নব ও পুরাতনের দন্ধ মাথা চাড়া দিচ্ছে। এবারে বিজেপির নব-পুরাতন বিবাদ প্রকাশ্যে এল, নব বিজেপি নেতাদের দুর্নীতিগ্রস্ত বলে পোস্টার দিল গাইঘাটা পুরাতন বিজেপির দল।

সম্প্রতি, উত্তর ২৪ পরগণা জেলার অন্তর্গত হাইঘাটা থানার দক্ষিণ বাগনানে যশোর রোডের পাশে একটি পোষ্টার দেখতে পাওয়া যায়। যেখানে তৃণমূল থেকে বিজেপিতে আসা ৯ জন নেতা-নেত্রীর দূর্নীতির কথা তুলে, তাদের ছবির নিচে লেখা রয়েছে, মুকুল রায় (সারদা কেলেঙ্কারির মূল পান্ডা), অর্জুন সিং (খুনি ও ব্যাপক বড় তোলাবাজ), লকেট চট্টোপাধ্যায় (শিশু পাচার কেলেঙ্কারিতে যুক্ত)।

এছাড়াও রয়েছে, সৌমিত্র খাঁ (এসএসসি ও টেট কেলেঙ্কারি যুক্ত), সব্যসাচী দত্ত (জমি মাফিয়া), নিশিত প্রামানিক (গরু ও সোনা পাচারে যুক্ত), অনুপম হাজরা (চাকরিতে টাকা তোলা বিষয় কেলেঙ্কারিতে যুক্ত), মনিরুল ইসলাম (খুনি ও বালি মাফিয়া), শঙ্কুদেব পণ্ডা (সারদা কেলেঙ্কারি ও দুর্নীতিতে যুক্ত)। যা নিয়ে রীতিমতো শুরু হয়েছে তৃণমূল-বিজেপি তরজা।

তবে বিজেপির দাবি, যেহেতু একুশে বিজেপিই সরকার গড়তে চলেছে। একে একে তৃণমূল সরকার ভেঙে পড়ছে। তাই বিজেপি দলকে কালিমালিপ্ত করার জন্য তৃণমূলের পক্ষ থেকেই এই সব কাজ করা হয়েছে। যদিও তৃণমূলের দাবি, তৃণমূলের দুর্নীতিগ্রস্ত নেতারা এখন বিজেপি দলটাকে দখল করেছে। পুরাতন বিজেপি কর্মী, নেতারা জায়গা পাচ্ছেন না। সেই গোষ্ঠীদ্বন্দ্বেরই ফল এটা। এর সঙ্গে তৃণমূলের কোন যোগ নেই।

Leave a Reply

%d bloggers like this: