বর্তমানে বাজেট পেশের পর থেকেই বহুল চর্চিত নির্মলা সীতারমনের জীবনপঞ্জির সংক্ষিপ্তসার

HnExpress ৩রা ফেব্রুয়ারী, বিশেষ প্রতিবেদন, অশোক সেনগুপ্ত ঃ বাজেট পেশের পর থেকেই নির্মলা সীতারমনকে নিয়ে বর্তমানে বেশ চর্চা চলছে। তাই সেই মানুষটিরই জীবনপঞ্জী ঘেঁটে তার কিছু সংক্ষিপ্তসার প্রতিবেদকের পক্ষ থেকে পাঠক কুলের জন্য পেশ করলাম। জন্ম ১৯৫৩-তে। দক্ষিণী রক্ষণশীল পরিবারেই জন্ম তাঁর। বাবা রেলে কাজ করতেন।

আর সেই সুবাদেই নানা সময় পড়াশোনা নানা জায়গায় করতে হয়। আর অর্থনীতিতে স্নাতকোত্তরের পর এম ফিল করছিলেন জেএনইউ-তে। কিন্তু তা অসম্পূর্ণ রেখে বিলেতে পারি দিতে হয়। কারণ স্বামী লন্ডন স্কুল অফ ইকনমিকসে পিএইচডি করার সুযোগ পেয়ে গিয়ে ছিলেন।

লন্ডনে গিয়ে নির্মলা প্রথমে প্রিন্সেপ স্ট্রিটের একটি নামি দোকানে সেলসের কাজ শুরু করেন। এরপর এগ্রিকালচারাল ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যাসোসিয়েশনে অর্থনীতিবিদের সহকারী হিসেবে যুক্ত হন, প্রাইস ওয়াটারহাউসের সিনিয়র ম্যানেজার এবং কিছুকাল বিবিসি-তে ছিলেন। ২০১৭-তে জাতীয় মহিলা কমিশনের সদস্য হন তিনি।

গত বছর জেএনইউয়ের সেরা প্রাক্তনীর স্বীকৃতি পেয়েছেন। গত বছর ফোর্বস পত্রিকা বিশ্বের সেরা ১০০ জন মহিলার তালিকায় ৩৪ নম্বরে রেখেছে তাঁকে। ভারতের দ্বিতীয় মহিলা হিসাবে প্রতিরক্ষামন্ত্রী এবং অর্থমন্ত্রী হয়েছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী হিসাবে একসময় অর্থমন্ত্রক নিজের হাতে রেখেছিলেন ইন্দিরা গান্ধী। আর সেই অর্থে পুরোদস্তুর মহিলা অর্থমন্ত্রী হিসেবে নির্মলা সীতারমনই ভারতে প্রথম।

প্রসঙ্গত, স্বামী পরাকালা প্রভাকর হলেন অন্ধ্রের কংগ্রেস ব্রাহ্মণ। বস্তুতঃ কংগ্রেস-মনোভাবাপন্ন পরিবারের সন্তান তিনি। দু’জনের পরিচয় হয় জেএনইউয়ে পড়ার সময়েই। পরাকালা মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডুর অন্যতম পরামর্শদাতাও ছিলেন তিনি। বিয়ে হয় ১৯৮৬-তে। একটি মেয়ের জীবন —।

 

Leave a Reply

%d bloggers like this: