আট, নয় ও দশই এপ্রিল বৃষ্টি সহ ভয়ানক ভূমিকম্পের সম্ভাবনা কলকাতাতে, এমনটাই ইঙ্গিত আবহাওয়া দপ্তরের

HnExpress ওয়েবডেক্স নিউজ, ওয়েদার রিপোর্ট ঃ ভ্যাঁপসা গরমের মধ্যেই স্বস্তির পূর্বাভাস দিল আলিপুর আবহাওয়া দফতর। দু’দিন আগেই চৈত্রের প্রখর রোদে হাল্কা বজ্র বিদ্যুৎ সহ কালবৈশাখীর দেখা মিলেছে কলকাতা সহ তার পার্শ্ববর্তী এলাকায়। তবুও কমছে না ভ্যাপসা গরমের দাপট। কিন্তু আলিপুর আবহাওয়া দফতরের রিপোর্ট অনুযায়ী জানা গেছে, কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গে নামতে পারে বৃষ্টি। আগামী তিন দিন —আট, নয় ও দশই এপ্রিল কলকাতায় বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

সাথে ঝোড়ো হাওয়া ও বজ্রপাতেরও পূর্বাভাস র‌য়েছে। আগামী ১০ তারিখ পর্যন্ত বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস রয়েছে হাওড়া, হুগলি এবং দুই ২৪ পরগনাতে। এরই পাশাপাশি হাল্কা বৃষ্টিপাত হবে পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতেও। শনিবার কলকাতায় দিনভর মেঘলা আকাশ থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। গুমোট পরিস্থিতিতে কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের মানুষদের জন্য এখন এটাই স্বস্তির খবর। ঝোড়ো হাওয়ার সাথে হাল্কা বৃষ্টিপাত হবে বলে জানা গেছে।

বৃষ্টির খবরে মনের স্বস্তি মিললেও ভূমিকম্পের ভয়ে দিন গুনছে কলকাতাবাসী। সোমবার রাতে আচমকাই কেঁপে উঠল উত্তরবঙ্গ। শিলিগুড়ি, জলপাইগুড়ি, দার্জিলিং, কালিম্পং সহ উত্তরবঙ্গ এর একাধিক অংশে ভূমিকম্প অনুভূত হয়। আতঙ্কে রাস্তায় বেরিয়ে আসেন মানুষজন। রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ছিল ৬.১। কম্পনের মৃদু প্রভাব থেকে বাদ যায়নি কলকাতাও।

মূলত সল্টলেক চত্বরেই কম্পন অনুভূত হয়েছে বলে জানা গেছে। ভূমিকম্পের উৎসস্থল যদিও সিকিমের গ্যাংটক। মাত্র কয়েক সেকন্ডের জন্য কম্পন স্থায়ী হলেও এর প্রভাব পড়েছে সিকিম গোটা শহর জুড়ে। প্রচুর মানুষ আতঙ্কে রাস্তায় বেরিয়ে আসেন। বড়সড় আকারে এই ভুমিকম্প হতে পারে কলকাতাতেও, হ্যাঁ এমনটাই জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। বিশিষ্ট ভূতত্ত্ববিদ ড. সুজীব কর জানান, ‘ বড় রকমের সংকটে পড়তে পারে কলকাতা, রাঁচি এবং বাংলাদেশের ঢাকা।

এদিন কলকাতাতে হাল্কা প্রভাব পড়লেও এর জেরে কোনও ক্ষয়ক্ষতির খবর এখনও পর্যন্ত মেলেনি। জলপাইগুড়ি ছাড়াও কম্পন অনুভূত হয়েছে আলিপুরদুয়ার, শিলিগুড়ি, ময়নাগুড়ি, কোচবিহার, মালদা, উত্তর দিনাজপুর সহ উত্তরবঙ্গের বিস্তীর্ণ এলাকায়। ভূমিকম্প হয়েছে মুর্শিদাবাদেও।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: