‘স্পীড ব্রেকার’ সম্বোধনের পাল্টা জবাবে মোদি হলেন ২০১৯ এর ‘এক্সপায়ার বাবু’, বললেন মমতা

HnExpress ভাস্কর বাগচি, দিনহাটা : যেমনটা মনে করা তেমনটাই হল উত্তরের মাটিতেই জমে উঠল লোকসভা নির্বাচনীর রনংদেহী ভোট যুদ্ধ। গতকাল পশ্চিমবঙ্গের অন্তর্ভুক্ত উত্তরবঙ্গের মাটিতে মমতাকে আক্রমন শুরু করেছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আর তারই উচিত জবাব দিলেন বাংলার অগ্নিকন্যা তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, সেই উত্তরের মাটিতে দাঁড়িয়েই। শিলিগুড়িতে মমতাকে ‘স্পিডব্রেকার’ বলে সম্বোধন করে ছিলেন মোদী। আর তার জবাবে দিনহাটায় মমতা বললেন, ‘ওনাকে আর প্রধানমন্ত্রী বলব না, ২০১৯ এর এক্সপেয়ারি বাবু বলব।’

শুধু তাই নয়, নির্বাচনী প্রচার শুরুর প্রথম দিনেই রণংদেহি মেজাজে মমতা বললেন, ‘লজ্জা হয়, ঘৃণা হয় এরকম একজন প্রধানমন্ত্রী পাওয়ার জন্য। বাংলাকে চেনেন না আপনি। মানুষ আপনাকে জেলে বেঁধে নিয়ে যাবে।’ পাকিস্তানে হামলা হলে মমতা কাঁদেন, সম্প্রতি এমনভাবেই আক্রমণ করে গিয়েছিলেন মোদী। তার উচিত জবাব দিতে গিয়ে এদিন মুখ্যমন্ত্রী বললেন, ‘দেশপ্রেমের সার্টিফিকেট অন্তত আপনার থেকে নেব না এক্সপেয়ারি বাবু।’ সুনির্দিষ্ট তথ্য থাকা সত্বেও কেন প্রধানমন্ত্রী কোনও ব্যবস্থা না নিয়ে এতগুলো সেনাকে মৃ্ত্যুমুখে ফেলে দিলেন, এদিন জনসমক্ষে তারও জবাব চান মমতা।

বুধবার দিনহাটায় মোদীকে একের পর এক চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তাতে সরাসরি বিতর্কে আসার আহ্বান যেমন ছিল, তেমনি উত্তরবঙ্গের চা বাগান, ছিট মহল, স্বাস্থ্য-শিক্ষা পরিষেবা, সব কিছুকে নিয়েই প্রধানমন্ত্রীকে একের পর এক বিঁধেছেন মমতা।তিনি এদিন একথাও বললেন, ‘আমি মোদী নই, তাই আমি মিথ্যা কথা বলিনা। কোটি কোটি টাকা লুঠ করে এখন ব্রিগেডে হ্যাঙ্গার করে সভা করছে।’ ব্রিগেডের সভাকে কটাক্ষ করে বললেন, ‘ব্রিগেডের ৮০ ভাগ বাদ দিয়ে ২০ ভাগ মিটিং। তাতে আবার হ্যাঙ্গার। মে মাসের পরে ওই হ্যাঙ্গারেই ঢুকে পড়তে হবে।’

তিনি আরও বললেন, ‘আগে দিল্লি সামলা, তারপর দেখিস বাংলা!’ মোদী যে গায়ের জোর দেখিয়ে মিথ্যা কথা বলছেন তার দাবি করে মমতা বললেন, ‘৫৬ ইঞ্চি ছাতি নিয়ে শুধু অপপ্রচার করছেন, আর কাজের বেলায় ঘন্টা। আপনারা নিজেদের কী ভাবেন! মানুষই এর জবাব দেবে ভোটের ময়দানে।’ এদিন মমতা কোচবিহারের বিজেপি প্রার্থী নিশীথ অধিকারির বিরুদ্ধে সিবিআইয়ের অভিযোগ সংক্রান্ত কাগজপত্র হাতে দেখিয়ে বললেন, এই দেখুন বিজেপি কাকে প্রার্থী করেছে? এবার আপনারাই সিধান্ত নিন কাকে ভোট দিয়ে কেন্দ্রে আনবেন বা আনবেন না।

Comments

Leave a Reply