শ্যামা প্রসাদনগর হাইস্কুল এবছর পদার্পন করল হীরকজয়ন্তী বর্ষে

HnExpress মাসুদূর রহমান, কলকাতা : ১৯৫৯ সালে পাইকপাড়া অঞ্চলের কিছু সহৃদয় ব্যক্তি বর্গীয়দের মধ্যে শিক্ষার আলো পৌঁছে দেবার লক্ষ্যে বিদ্যালয় স্থাপনের যে স্বপ্নের বীজ পুঁতেছিলেন, আজ তা পরিপূর্ণতা পেল বর্ণ পরিচয়ের অক্ষরে অক্ষরে। আর গতকাল ১লা এপ্রিল সকলে যখন খুশির ছলে একে অপরকে বোকা বানাতে ব্যাস্ত(এপ্রিল ফুল), আর সেই ১লা এপ্রিলে দমদম পুরসভার অন্তর্গত শ্যামা প্রসাদনগর হাইস্কুল আজ ৬০তম বছরে পদার্পন করলো।

এই হিরক জয়ন্তী বর্ষপূর্তির পুণ্যলগ্নকে চির স্মরণীয় করে রাখার উদ্দেশ্যে ২৬শে মার্চ এপ্রিল থেকে গতকাল ১লা এপ্রিল পর্যন্ত একটি কর্মশালার আয়োজন করা হয়। যার মধ্যে ছিল রক্তদান শিবির, আন্ত-বিদ্যালয় সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা, ফুটবল টুর্নামেন্ট, শিক্ষামূলক প্রদর্শনী। এছাড়াও আচার্য সত্যেন্দ্রনাথ বসু মহাশয় এর কর্মজীবনী বিষয়ক আলোচনা সভা, গণ দর্পন আয়োজিত সচেতনতা মূলক আলোচনা ইত্যাদি।

৩০ তারিখ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্রদের পুনর্মিলন এর উৎসব এই অনুষ্ঠানকে আরো সাফল্যমন্ডিত করে তোলে। ৩১শে মার্চ বিখ্যাত শিক্ষাবিদ এবং ভাষাবিদ মাননীয় অধ্যাপক শ্রী পবিত্র সরকার এই অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন, এছাড়া উপস্থিত ছিলেন উত্তর দমদম লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ মাননীয় সৌগত রায়।

ছাত্র ও শিক্ষিকা দ্বারা পরিবেশিত সংগীত ও নৃত্যের যুগলবন্দিতে এক অপূর্ব সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার আয়োজন করা হয় এদিন। যোগব্যায়াম এবং অন্যান্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এই সন্ধ্যার বিশেষ আকর্ষণ ছিল। ১লা এপ্রিল বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠা দিবসে প্রধান অতিথি হিসেবে আমন্ত্রিত ছিলেন দমদম উত্তর লোকসভা কেন্দ্রের বিধায়ক তন্ময় ভট্টাচার্য্য, ব্যারাকপুরের এ আই সি এবং অন্যান্য অতিথিবর্গরা।

এদিন সন্ধ্যায় ছাত্রদের অভিনীত নাটক সুকুমার রায় এর ‘অবাক জলপান’ পরিবেশিত হয়, সাথে বিদ্যালয়ের শিক্ষিকাদের একটি সঞ্চালিত গীতি আলেখ্য ‘আমি তোমার মাটির কন্যা’ পরিবেশন করা হয়। এছাড়াও একক সংগীত পরিবেশন এবং সমাপ্তি অনুষ্ঠানে ‘যুদ্ধের বিরুদ্ধে’ বার্তা উপস্থাপনার মাধ্যমে শেষ হয় বিদ্যালয়ের হীরক জয়ন্তী অনুষ্ঠান।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: