স্ট্রেসড‘ হয়ে পড়াতেই কি ভাঙল মাঝেরহাট সেতু? প্রশ্ন অভিজ্ঞ স্থপতির

HnExpress সম্রাট গুপ্ত, কলকাতা : মাঝেরহাট সেতু বহুব্যবহৃত বা স্ট্রেসড হয়ে পড়ায় ভেঙে পড়তে পারে বলে মনে করেন
কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের এমএস এবং সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের বিশিষ্ট অধ্যাপক অলোক সরকার। নিউ ইয়র্কের অন্তত ১০টি সেতুর নির্মাণ কাজের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন তিনি।

এক একান্ত সাক্ষ্যাৎকারে HnExpress  এর সংবাদ প্রতিনিধির কাছে এই প্রসঙ্গে অলোক বাবু তাঁর মতামতে জানালেন যে, সেতু ভেঙে পড়া একটা জঘন্য অপরাধ। এর নেপথ্যে অন্তত চারটি কারণ থাকতে পারে। এক, ওভারলোডিং। দুই, খারাপ রক্ষণাবেক্ষণ, তিন, নিচু মানের নির্মাণ ও চার, খারাপ নকশা। এক্ষেত্রে বহুল ও দীর্ঘ ব্যবহার (স্ট্রেসড) একটা মূল কারণ বলে মনে হচ্ছে । 

অলোক সরকার বলেন, প্রতিটি সেতুর একটা নির্দিষ্ট ওজন এবং চাপ (stress ) সহ্য করার জন্য নকশা করা হয়। বয়সের সাথে এই ক্ষমতাও  কমতে থাকে। কারণ, ব্রিজ বছরের পর বছর ব্যাবহারের ফলে যে মালমশলা দিয়ে ব্রিজ তৈরি হয়েছে সেগুলো ক্ষয়ে যেতে থাকে । তখন ইঞ্জিনিয়াররা একটা অংক কষেন। একে ব্রিজ রেটিং অ্যানালিসিস বলা হয়। আমার ধারণা আমাদের দেশে এই অংক কষা হয় না, যার জন্য ব্রিজ দুর্বল হয়ে গেলেও বোঝা যায় না। এক্ষেত্রে সেই সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। খারাপ মালমশলা বলতে inferior quality materials অর্থাৎ, materials are not according to engineering specifications.

এছাড়া মনে হচ্ছে ব্রিজ টার দেখভাল ঠিকমতো হয়নি। এই মন্তব্য করে তিনি বলেন, সমস্ত বিষয় বিশেষজ্ঞদের খতিয়ে দেখার পরেই পতনের প্রকৃত কারণ বোঝা যাবে। দূর্ঘটনার কারণ খুঁজে বার করে দোষীদের বিরুদ্ধে শাস্তির ব্যবস্থা করুক সরকার।

1 thought on “স্ট্রেসড‘ হয়ে পড়াতেই কি ভাঙল মাঝেরহাট সেতু? প্রশ্ন অভিজ্ঞ স্থপতির

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: