সেফ ড্রাইভ , সেফ লাইফের কর্মসূচীতে অভিনব সংযোজন ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেট ও প্রতিবেশী সমাজকল্যাণ সংস্থার

HnExpress দেব চক্রবর্তী , ব্যারাকপুর : প্রতিদিন লক্ষ লক্ষ মানুষ নিত্য প্রয়োজনে বিভিন্ন প্রান্তে কখনও ট্রেনে, বাসে, ট্যাক্সিতে, অটোতে বা টোটোতেই মূলত যাতায়াত করেন। সেক্ষেত্রে চালকদের হতে হয় সজাগ ও স্বচ্ছ দৃষ্টিশক্তিসম্পন্ন। বিভিন্ন প্রাকৃতিক অবস্থায় তাঁদের দৃষ্টিশক্তির উপরই ভরসা করতে হয় জনসাধারণকে। প্রসঙ্গত ট্রেনের চালকদের ঠিক এই কারণেই নিয়মিত আই টেস্ট হয়ে থাকে কিন্তু অন্যান্য যানচালকদের ক্ষেত্রে সেরকম কোনও নিয়ম নেই বলেই জানা গেছে।

গত ২ ডিসেম্বর ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেট ও প্রতিবেশী সমাজকল্যাণ সংস্থা যৌথভাবে আয়োজন করলো যানচালকদের জন্য এক অভিনব প্রকল্প। ‘ সেফ ড্রাইভ, সেভ লাইফ ‘ প্রকল্পটির ধারণা আরও বাস্তবমুখী করার লক্ষ্যে তারা আয়োজন করে সমস্ত যানচালকদের জন্য বিনামূল্যে চক্ষু পরীক্ষা শিবির। প্রায় শতাধিক যানচালক এই উদ্যোগে সামিল হন। ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের কমিউনিটি হলে এই শিবির চলে প্রায় সারাদিন।

ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের প্রায় বেশিরভাগ যানচালককে এই শিবিরে অংশ নিতে দেখা যায়। বিশেষ করে ব্যারাকপুর, সোদপুর, বেলঘড়িয়া, নিমতা, ডানলপ সহ বিস্তীর্ণ অঞ্চলের চালকদের মধ্যে তুমুল সাড়া ফেলে দেয় এই কর্মসূচী। চক্ষু পরীক্ষার পাশাপশি তাঁদের সেফ ড্রাইভ, সেভ লাইফের পূর্ণাঙ্গ ধারণা বিশ্লেষণ করা হয় এবং এই প্রকল্পের সাথে চোখের দৃষ্টিশক্তির সম্বন্ধে আলোকপাত করা হয়।

ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেট ও প্রতিবেশী সমাজকল্যাণ সংস্থার এই মূল্যবান অভিনব প্রয়াসকে আরও সুচারু সম্পাদনায় সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয় ইউনাইটেড অপটিক্যাল। ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের বৃহত্তম এই পরিসরের বহু মানুষও উদ্যোক্তাদের সেফ ড্রাইভ, সেভ লাইফের কর্মসূচীতে প্রাসঙ্গিক এই অভিনব প্রয়াসের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

1 thought on “সেফ ড্রাইভ , সেফ লাইফের কর্মসূচীতে অভিনব সংযোজন ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেট ও প্রতিবেশী সমাজকল্যাণ সংস্থার

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: