ইয়উটিউবে এখন স্বল্পদৈর্ঘ্যের কাহিনীচিত্রের রমরমা বাজার

HnExpress শুভব্রত মুখার্জী, কলকাতা : মুলস্রোতের কাহিনীচিত্রের পাশাপাশি স্বল্পদৈর্ঘ্যের কাহিনীচিত্রের এখন রমরমা বাজার। ইয়উটিউব-এর দৌলতে উঠে এসেছে অসংখ্য ইয়উটিউব চ্যানেল। প্রত্যেক সপ্তাহেই এই ইয়উটিউব চ্যানেল-গুলোর উপর ভর করেই একের পর এক শর্ট ফিল্ম মুক্তি পাচ্ছে। তৈরি হচ্ছে সিনেমার একটা প্যারালাল ইন্ডাস্ট্রি। এখানে কাজ পাচ্ছেন বেশ কিছু অভিনেতা-অভিনেত্রী, পরিচালক ও কলাকুশলীরা। এইসব সিনেমা-গুলির শিল্পকাঠামো, গল্প বলার ধরন, অভিনয় ক্ষমতা – সব কিছুই নিম্নমানের। কিছু ইয়উটিউব চ্যানেল আবার স্বল্পদৈর্ঘ্যের সিনেমার নাম করে অন্য পথে হাঁটলেও ব্যতিক্রমী কিছু ছবিও বানানো হচ্ছে। ভালো ছবি বানানোর জন্য আস্তে আস্তে “সিনে ক্যাম্পাস” নামক ইয়উটিউব চ্যানেলটি স্যোশাল মিডিয়ায় ক্রমশ নিজের জনপ্রিয়তা লাভ করেছে।

“কাস্টিং ক্যাম্পাস”-এর ছাতার তলায় তৈরী হয়েছে এই ইয়উটিউব চ্যানেল সিনে ক্যাম্পাস। যারা এর আগে তথাগত মুখার্জী অভিনীত স্বল্পদৈর্ঘ্যের ছবি “অসমাপ্ত” বানিয়ে দর্শকদের মন জয় করেছিলো। এর পর “সখী” বলে একটি ব্যতিক্রমি ছবি বানিয়ে সমালোচকদের বুঝিয়েছিলেন, গল্প এই ভাবেও বলা যায়। গপ্লের মূল বিষয়বস্তু ছিলো দুটি ভিন্নধর্মী মেয়ের অকৃত্রিম ভালোবাসা।বর্তমান সমাজব্যবস্থা (বিশেষ করে গ্রামীন) এই ধরনের সম্পর্ক মেনে নেয় না। কিন্তু পরিচালক শৈবাল আদক তার নিপুণ মুন্সিয়ানায় ছবিটির বিষয়বস্তু ফুটিয়ে তুলেছেন। তার লেখনী থেকে সামিয়া, মৌ, আসিফ, বিল্টু, শোয়েব চরিত্রগুলি জীবন্ত হয়ে উঠেছে। এর পরের ছবি “২ টাকা”। তাপস পালের মত বিতর্কিত চরিত্রকে কাস্ট করে ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি-তে তার দ্বিতীয় প্রত্যাবর্তন ঘটিয়েছে কাস্টিং ক্যাম্পাস। দেবাদিত্য বন্দ্যোপাধ্যায়ের অসাধারণ নির্দেশনা ও তাপস পালের দুর্দান্ত অভিনয় “২ টাকা”-কে স্যোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল করে তুলেছে।

কাস্টিং ক্যাম্পাসের পরবর্তী ছবি ৭ই সেপ্টেম্বর সিনে ক্যাম্পাস থেকে মুক্তি পেয়েছে – যার নাম “একটি অ-প্রেমের গল্প”। ছবিটির পরিচালক বিজ্ঞাপন দুনিয়ায় চুটিয়ে কাজ করা অমিত বাগচী। একটি বোবা ছেলের প্রেম, যন্ত্রণা, একটা মেয়েকে বাঁচানোর আকুতি – এই গল্পের মূল বিষয়। এই কেন্দ্রীয় চরিত্রটিতে অভিনয় করে অমিত মানি আরেক বার নিজের জাত চিনিয়েছেন। বাদবাকী চরিত্রে অভিনয় করেছেন রনিত সরকার, প্রীতম দাস, পায়েল চ্যাটার্জী ও দেবযানী দে। আগামী দিনে কাস্টিং ক্যাম্পাসের প্রযোজনায় আরো কিছু ভালো স্বল্পদৈর্ঘ্যের ছবি আসতে চলেছে কাস্টিং ক্যাম্পাসের ইয়উটিউব চ্যানেল “সিনে ক্যাম্পাস”-এ – এ কথা জানালেন কাস্টিং ক্যাম্পাসের অন্যতম কর্ণধার কৃষ্ণেন্দু ষান্নিগ্রাহী ।

ছবিগুলিতে অসাধারণ শিল্প নির্দেশনা করেছেন পৃথ্বীরাজ দে। আগের কয়েকটি ছবির মত এই ছবিটিতেও নিজের সৃজনশৈলীর ছাপ রেখেছেন পেশায় অভিনেতা কৃষ্ণেন্দু চক্রবর্তী। সঠিকভাবে সঞ্চালনার দায়িত্ব পালন করেছেন নীলাব্জ্য নাথ ও রনিত সরকার। এই ছবিগুলির প্রযোজনা করেছেন তানিয়া গাঙ্গুলি, কৃষ্ণেন্দু ষান্নিগ্রাহী ও সুমিতা মানি।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: