বিশেষ ধারাবাহিক প্রতিবেদন”বিপদ পদে পদে” – ৫ম পর্যায়

HnExpress সম্রাট গুপ্ত, কলকাতা ঃ এ/২৪ বাগড়ি মার্কেটে বিধ্বংশী অগ্নিকান্ড নিয়ে ক’দিন ধরে লেখালেখি হবে। পত্রপত্রিকায় চর্চা হবে, এ রকম আরও কত বিপজ্জনক বাড়ি আছে কলকাতায়। তার পর সব চর্চা আবার থেমে যাবে।

বস্তুত, গোটা উত্তর এবং মধ্যে কলকাতায় বিপজ্জনক বাড়ির সংখ্যা বেশ কয়েক হাজার। দি ক্যালকাটা হাউস ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সুকুমার রক্ষিতের হিসাবে পুরসভার ১৪৪টি ওয়ার্ডে কেবল কাঠামোগতভাবে বিপজ্জনক বাড়ির সংখ্যা প্রায় আড়াই হাজার। এগুলির বেশির ভাগ বাগবাজার, শ্যামবাজার, শোভাবাজার, টালা, বেলগাছিয়া প্রভৃতি অঞ্চলে। আর, অগ্নি-নিরাপত্তার চরম অভাব রয়েছে আরও অন্তত দু’হাজার কাঠামোয়।

প্রতিটি বড় অগ্নিকান্ডের পর তদন্ত কমিটি বসে। তাদের সুপারিশের সিংহভাগ ফাইলবন্দি হয়ে থাকে। সংশ্লিষ্ট বাড়ি বা বাজার ফের ডুবে যায় পাহাড়প্রমাণ বিপদের মধ্যে। বড়বাজারের নন্দরাম মার্কেটের বিধ্বংশী অগ্নিকান্ডের পর তদন্ত কমিটি ওই বহুতলের বেআইনি নির্মাণ ভেঙে ফেলার নির্দেশ দিয়েছিল। তা ভাঙা হয়নি। ঘটনার কিছুকাল বাদে কলকাতা পুরসভার মেয়র উদ্যোগী হয়ে ওই বেআইনি নির্মাণের অংশগুলিতে ফের দোকানিদের স্টল তৈরির বৈধ অনুমতি দেন।
(চলবে)


Posted

in

,

by

Tags:

Comments

Leave a Reply