বাংলা বনধে রাজ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া, রেশ কাটতে না কাটতে ফের বনধ শুক্রবার

HnExpress নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা : ইসলামপুরের দুই ছাত্রের মৃত্যু ঘটনায় উত্তপ্ত বাংলার রাজনৈতিক পরিস্থিতি। ঘটনার প্রতিবাদে আজ বুধবার গোটা বাংলা বনধের ডাক দিয়েছে বিজেপি। ১২ ঘন্টার বনধ পালন করছে তারা। কোথাও বিজেপি পার্টি অফিস ভেঙে জ্বালিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। আবার কোথাও একাধিক বাস জ্বালিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল বিজেপির বিরুদ্ধে।

বুধবার সকাল থেকেই টানটান উত্তেজনার পরিস্থিতির ছবি ধরা পড়েছে সারা রাজ্যজুড়ে। এদিন সকালের দিকে বিজেপির পার্টি অফিস পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগনা জেলার ইছাপুরে। জানা গেছে, বুধবার সকালের দিকে বনধের সমর্থনে ইছাপুর স্টেশনে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে বিজেপি কর্মীরা। রেল লাইনের উপরে দলীয় ব্যানার এবং পতাকা নিয়ে বিক্ষোভ দেখানো হয়, করা হয় রেল অবরোধ।

এর পাশাপাশি খোদ ইসলামপুরে জাতীয় সড়কে সরকারি বাস ভাঙচুর করে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে বনধ সমর্থকেরা। শিয়ালদা দক্ষিণ শাখার বিভিন্ন জায়গায় ওভারহেড লাইনে কলাপাতা ফেলে রেখে ট্রেন চলাচলে বিঘ্ন ঘটানো হয়। মেন শাখাতেও কল্যাণী, কাঁচরাপাড়াতেও রেল অবরোধের চেষ্টা করে বিজেপি কর্মী-সমর্থকেরা। বনধ বিরোধিতায় পথে নেমেছেন হালিশহর পুরসভার প্রধান অংশুমান রায়ও। হুকুমচাঁদ মিল-সহ বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেন।

বনধ সফল করতে কলকাতার রাজপথে নামে বিজেপি। আর তার বিরোধিতায় নামে শাসকদলও। এই বনধের রেশ কাটতে না কাটতেই ফের আরেকটা বনধের মুখে পড়তে চলেছে বাংলার মানুষ।

আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর অর্থাৎ শুক্রবার ব্যবসা ধর্মঘটে অনড় রইল কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স। ফ্লিপকার্ট এবং ওয়ালমার্টের গাঁটছড়া বাঁধার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধেই ওই ধর্মঘটে যেতে চলেছে সর্বভারতীয় সংগঠনটি। ফলে আবার সমস্যায় পড়বে রাজ্যের সাধারণ মানুষ। খুচরো বাজারে আরও বেশি বিদেশি পুঁজি আমদানির প্রতিবাদে তারা ভারতজুড়ে ব্যবসা ধর্মঘট ডেকেছে বলে জানিয়েছে ওই সংগঠন।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: