বইমেলা, গুয়াতেমালা আর দিব্যজ্যোতি

বইমেলা ৪ পর্ব

HnExpress সম্রাট গুপ্ত, ২৯ জানুয়ারি, কলকাতা : বইমেলা আসার অনেক আগে থেকেই ঘুম উবে যায় দিব্যজ্যোতি মুখোপাধ্যায় এর। উড়বে না-ই বা কেন? স্প্যানিশ ভাষাটা যে গুলে খেয়েছেন! এমনভাবে খেয়েছেন যে এদিক থেকে তাঁর জুড়ি মেলা ভার।

যখনই লাতিন আমেরিকার কোনও দেশ কলকাতা আন্তর্জাতিক বইমেলার সহযোগী রাষ্ট্র হয়েছে বা হচ্ছে, হরেক রকম অতিথি আসছেন সেই দেশ থেকে। নানা বৈঠকে বসতে হচ্ছে সেদেশের দূতাবাস ও বিশিষ্ট শিল্পী-সাহিত্যিকদের সঙ্গে। এ বার যেমন বসতে হয়েছে গুয়াতেমালার প্রতিনিধিদের সঙ্গে। আর কে এভাবে চটজলদি সমন্বয় রাখবেন?

দীর্ঘদিন ধরেই দিব্যজ্যোতি বিভিন্ন নামী দৈনিকে লেখালেখি করেছেন খেলাধূলার ওপর। সুদর্শন, অমায়িক, নবীন এই ভাষা শিক্ষক দক্ষিণ কলকাতার রামকৃষ্ণ মিশন কালচারাল ইন্সটিট্যুটের ভাষা শিক্ষা বিভাগের অন্যতম কর্তা। নিজেই তৈরি করে ফেলেছেন ‘ইন্দো হিস্পানিক ল্যাঙ্গুয়েজ অ্যাকাডেমি’। এবার প্রতিষ্ঠানের তরফে আয়োজন করছেন নানা রকম আলোচনার।

কিন্তু কেবল দিব্যজ্যোতিকে নিয়ে আলোচনা করলে তো হবে না! গুয়াতেমালার কথা তো কিছু বলতেই হবে। এর উত্তর-পশ্চিমে মেক্সিকো, দক্ষিণ-পশ্চিমে প্রশান্ত মহাসাগর, উত্তর-পূর্বে বেলিজ ও ক্যারিবীয় সাগর, এবং দক্ষিণ-পূর্বে হন্ডুরাস ও এল সালভাদোর। গুয়াতেমালা মধ্য আমেরিকার সবচেয়ে জনবহুল রাষ্ট্র। রুক্ষ পাহাড় ও আগ্নেয়গিরি, নয়নাভিরাম হ্রদ ও সবুজের সমারোহে সমৃদ্ধ এই দেশটিতে মধ্য আমেরিকার এক-তৃতীয়াংশ জনগণের বাস। উচ্চভূমিতে অবস্থিত গুয়াতেমালা সিটি(Ciudad de Guatemala সিউদাদ দে গুয়াতেমালা) দেশের রাজধানী ও বৃহত্তম শহর।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: