উদ্বোধন হল মধ্যমগ্রাম প্রেস ক্লাব এর

HnExpress অলোক আচার্য, মধ্যমগ্রাম : শনিবার বিকেলে বারাসতের পর এবারে মধ্যমগ্রাম প্রেস ক্লাব এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হল। ১লা সেপ্টেম্বর বিকেলে মধ্যমগ্রাম এর নজরুল শতবার্ষিকী সদনে প্রেস ক্লাব উদ্বোধনের সাক্ষী থাকল একঝাঁক ফুটবল নক্ষত্র, অভিনেত্রী থেকে শাসক ও বিরোধী দলের নেতা নেত্রী সহ জেলার দৈনিক ও বিদ্যুতিন সংবাদ মাধ্যমের সাংবাদিক, চিত্র সাংবাদিকরা। এদিন এই অভিনব উদ্বোধনী অনুষ্ঠানকে ঘিরে সুন্দর পরিবেশ, ভাবনা, মঞ্চ সুস্বাগতম নৃত্য সহযোগে গানে অতিথি বরণ একটি অনন্য মাত্রা এনে দিয়েছিল। মঙ্গলদীপ প্রজ্জ্বলন করেন মধ্যমগ্রাম এর বিধায়ক তথা পৌরপ্রধান রথীন ঘোষ, মধ্যমগ্রাম এর পুরপারিষদ সদস্য অরবিন্দ মিত্র, নিমাই ঘোষ, উপপুরপ্রধান সুদীপ মিত্র, বারাসতের পৌরপ্রধান সুনীল মুখোপাধ্যায়, মধ্যমগ্রামের বিরোধী দলনেতা তথা পৌরপিতা সনৎ বিশ্বাস, ফুটবলার ও প্রশিক্ষক বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য, প্রশান্ত চক্রবর্তী, অভিজিৎ রায় চৌধুরী, অভিনেত্রী মোনালিসা, বর্তমান সংবাদপত্রের সাংবাদিক হারাধন চৌধুরী, আনন্দবাজার পত্রিকার সন্দীপন চক্রবর্তী, প্রাক্তন পৌরপ্রধান ও পৌরপিতা মিহির দাশগুপ্ত, বিজেপি নেতা দেবাশিষ মিত্র, সাংবাদিক রজত রায় চৌধুরী, ঋতব্রত ভট্টাচার্য, সাংবাদিক ও সঞ্চালক অঙ্কুর ভট্টাচার্য, অনির্বাণ সিনহা, জেলা তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তরের প্রকাশনা আধিকারিক প্রসেনজিৎ মন্ডল সহ বিভিন্ন বৈদ্যুতিন সংবাদমাধ্যমের সাংবাদিক ও চিত্র সাংবাদিকগণ। এদিন আজকাল সংবাদপত্রের চিত্র সাংবাদিক ভবতোষ চক্রবর্তীকে বিশেষ ভাবে সম্বর্ধিত করা হয়।

সাংবাদিকদের নিজস্ব সংগঠন হল এই প্রেস ক্লাব। যেখানে নিরপেক্ষতা ও সত্যতা বজায় রেখে সংবাদ পরিবেশন করা অত্যন্ত জরুরি। দীর্ঘ পথ চলার শুভেচ্ছা কামনা করেন শাসক ও বিরোধী দলের নেতারা। বিধায়ক রথীন ঘোষ বললেন, উৎসাহ ও উদ্দীপনা নিয়ে পথ চলা শুরু হল মধ্যমগ্রাম প্রেস ক্লাবের। আজ অনেক সাংবাদিক বন্ধুরাও এসেছিলেন এই অনুষ্ঠানে। এটা একটা ভাল দিক। এদিন মঞ্চে উপস্থিত অতিথিরা অনুষ্ঠান উদ্যোক্তাদের আন্তরিক অভিনন্দন জানায়। তারা আরও বললেন, আজ সংবাদ মাধ্যম রাজনৈতিক জগত এর বিরুদ্ধেও লিখছেন। তাতে যদি কোন ত্রুটি বিচ্যুতি থাকে তবে তা ধরিয়ে দেবেন। ভুল ত্রুটি নিয়ে পজিটিভ ও নেগেটিভ ভাবনা সবার মধ্যে থাকবে। প্রতিকূল অবস্থার মধ্যে দিয়ে সাংবাদিকদের নতুন ভাবে এগিয়ে নিয়ে যেতে দিশা দেখাবে এই প্রেস ক্লাব। সাংবাদিক রজত রায় চৌধুরী দীর্ঘ ২৯ বছরের সাংবাদিকতার অভিজ্ঞতা থেকে বলেন, মধ্যমগ্রামের বুকে আরো একটি প্রেস ক্লাব হল। খুব দরকার ছিল এটা। মত বিনিময় করা। সাংবাদিকদের হাত এতে আরও শক্তিশালী হল। প্রেস ক্লাব আরও বেশি সমৃদ্ধ হোক এই কামনাই করি। আর তার সাথে সাথে সুসংঘবদ্ধ হয়ে দায়িত্ব পালন করবেন। সাংবাদিকদের স্বাধীন সমালোচনা করতে ছাড়বেন না। অভিনেত্রী মোনালিসা বলেন, মধ্যমগ্রামের বাসিন্দা হওয়ায় যে সম্মান দিয়েছে তাতে আমি সত্যি গর্বিত, আনন্দিত, উদ্ভাসিত। আশা করা যায় উদ্যোক্তারা কাজের অভিজ্ঞতাকে যথাযথ ভাবে কাজে লাগাবেন এই প্রেস ক্লাবের মাধ্যমে। মিহির দাশগুপ্ত বললেন, সাংবাদিকদের নিজস্ব সংগঠন তার জায়গা করে নিয়েছে। বিভিন্ন সংবাদপত্রের সাংবাদিকদের দায়িত্ব আরো বাড়ল। তাদের পথচলা আরও সার্থক হয়ে উঠুক।
বিধায়ক চিরঞ্জিৎ চক্রবর্তী মুখ্যমন্ত্রীর শুভেচ্ছা পত্র পাঠ করে শোনান। প্রেস ক্লাবের সভাপতি অনির্বাণ চৌধুরী ও সম্পাদক প্রবাল চক্রবর্তী তাদের সকল পথচলার সহযোগীদের সাধুবাদ জানান তাঁরা। প্রেস ক্লাবের অনুষ্ঠানের পাশাপাশি স্থানীয় নৃত্য শিল্পীরা এক মনোজ্ঞ নৃত্যানুষ্ঠান পরিবেশন করেন।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: