পুজো কমিটিদের নিয়ে বীজপুর পুলিশ প্রশাসনের সভা, ২২শেই বিসর্জন

HnExpress দেবাশিস রায়, কাঁচরাপাড়া : রুটিন মাফিক প্রতি বছরের মতো এবছর পুজো উদ্যোক্তাদের নিয়ে পুলিশে সভা অনুষ্ঠিত হল বৃহস্পতিবার, ৪ অক্টোবর। বীজপুর থানায় অনুষ্ঠিত এই সভায় উপস্থিত ছিলেন নথিভুক্ত ১৩৩টি পুজো কমিটির সদস্যরা। সকলের মধ্যে আলাপচারিতায় ঠিক হয়েছে ১৯ থেকে ২২ অক্টোবরের মধ্যে বিসর্জন সম্পন্ন করা হবে। এছাড়াও প্রতি বছরের মতো এবারও থানা মোড়, গান্ধী মোড় ও বাগমোড় পর্যন্ত যানবাহন নিয়ন্ত্রণ করে পন্চমীর দিন থেকেই নো-এন্ট্রি জোন করা হচ্ছে।

আলোচনায় অংশ নিয়ে বীজপুরের আইসি কৃষ্ণেন্দু ঘোষ বলেন, পুজো কমিটিগুলিকে অগ্নি নির্বাপণের উপযুক্ত ব্যবস্থা, মহিলা পরিচালিত পুজোগুলোর নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে হবে। কোথাও রাস্তা আটকে মণ্ডপ গড়াও সমীচীন নয় বলে তিনি জানান। বারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের এসিপি-১ স্বপন দাস জানান, বাণিজ্যিক স্বার্থে রাস্তায় কোনও তোরণ গড়া হলে তা যেন যথেষ্ট উচ্চতায় থাকে। কোনওভাবেই তা যেন যান চলাচলের প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি না করে।

এদিনের সভায় হাজির থেকে এলাকার বিশিষ্ট সমাজসেবী ও তৃণমূল নেতা প্রবীর সরকার জানান, আগে বীজপুর পুলিশ প্রশাসন পুজো উপলক্ষে শারদ সম্মান দিত পুজো কমিটিদের। বেশ কয়েকবছর ধরে তা বন্ধ হয়ে গেছে। তিনি পুনরায় তা চালু করার দাবি জানান। এতে সম্মতি দেন স্বয়ং এসিপি-১। তিনি বলেন, বারাকপুর পুলিশ কমিশনারেট এমন সম্মাননা জানায়। তবু বীজপুরের আইসি-কেও তিনি এধরনের সম্মাননা দেওয়ার পরামর্শ দেন।
এরই পাশাপাশি বীজপুর প্রেস ক্লাবের তরফে তাঁকে অনুরোধ করা হয় পুজোর কদিন নো-এন্ট্রি জোনে সংবাদমাধ্যমের চলাচলের বিষয়টি ভেবে দেখার জন্য। এ প্রসঙ্গে তিনি জানান, বীজপুর প্রেস ক্লাব সাংবাদিকদের নাম, সংবাদমাধ্যমের নাম, গাড়ি ও ফোন নম্বর-সহ থানার আইসি-র কাছে জানালে জরুরিভিত্তিক নো-এন্ট্রি জোনে চলাচলের স্টিকার ইস্যু করবে।

এই আলোচনাসভায় অন্যান্য বিশিষ্টজনের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বীজপুরে তৃণমূল যুব কংগ্রেসের কনভেনর তথা পুর পার্ষদ সুজিত দাস, খোকন তালুকদার, সোনালি কুণ্ডু সিংহরায় ও ওসি ট্রাফিক হিতুলাল সরকার।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: