হারিয়ে যাওয়া শিশুকে ঘরে ফেরাল বীজপুর পুলিশ

0

HnExpress দেবাশিস রায়, কাঁচরাপাড়া : মা-মামার সঙ্গে পুজোর কেনাকাটা করতে এসেছিল বছর ছয়েকের মেয়ে পিউ। কাঁকিনাড়া থেকে তারা কাঁচরাপাড়ায় এসেছিলেন। সোমবার ৮ অক্টোবর কাঁচরাপাড়ার গান্ধী মোড়ের ঘটনা। পথে মামা-মায়ের হাতছাড়া হয়ে যায় বাচ্চাটি। তাকে উদ্দেশ্যহীন ভাবে গান্ধী এলাকায় ঘোরাঘুরি করতে দেখেন বীজপুর থানা কর্মরত সাব-ইন্সপেক্টর সন্জয় নস্কর। খোঁজ চলতে থাকে বাচ্চাটির পরিবারের লোকজনের। তার কান্নাভেজা গলার ভাষা শুনে সন্জয়বাবু বুঝতে পারেন সে অবাঙালি। ভালো করে সে নাম-ঠিকানাও বলতে পারে না। সারা এলাকা জুড়ে খোঁজ চলতে থাকে তার মামা ও মায়ের। এমন সময় স্থানীয় এক ব্যক্তি এসে জানান, এক মহিলা কোলে একটি বাচ্চা নিয়ে কাঁদতে কাঁদতে যাচ্ছেন। সন্জয়বাবু ওই মহিলাকে ডেকে আনতে বলেন। তিনি আসতেই মেয়েটি তাকে জড়িয়ে ধরেন। জানা যায়, ওই মহিলার নাম পার্বতী। তাঁর স্বামী সন্দীপ কুমার সেনা বিভাগে কর্মরত।

পরে ফোনে পার্বতীদেবী জানান, তাঁর ভাইয়ের সঙ্গে ছেলে ও মেয়ে পিউকে নিয়ে কাঁচরাপাড়ায় এসেছিলেন। হঠাৎ তাঁর হাতছাড়া হয়ে যায় পিউ। তিনি উদভ্রান্তের মতো খোঁজাখুঁজি করতে থাকেন। অবশেষে পুলিশের সহযোগিতায় মেয়েকে পেয়ে খুশি। পরে বীজপুর পুলিশের কাছে লিখিত জবানবন্দি দিয়ে পার্বতীদেবী পিউকে বাড়ি নিয়ে যান। বীজপুর পুলিশের এধরনের কাজে আরও একবার স্পষ্ট হল মানবিকতার মুখচ্ছবি।

Leave a Reply

%d bloggers like this: