দশেরার জমায়েতে ট্রেনের ধাক্কায় মৃত ৫০, আহত বহুজন

HnExpress নিজস্ব প্রতিনিধি, পাঞ্জাব : অমৃতসরে চৌরাচৌরি বাজারের কাছে রেললাইনের ধারে ছোট মাঠে জ্বলছে রাবণের কুশপুতুল। ১৯ অক্টোবর, শুক্রবার রাত ৭টা নাগাদ অমৃতসরের ধোবিঘাট এলাকায় পালিত হচ্ছিল দশেরা। সেখানে রাবণ পোড়ানোর সময় লাইনের ওপর দাঁড়িয়ে ছিলেন প্রচুর মানুষ। সে সময়ই ডিএমইউ জলান্ধর-অমৃতসর প্যাসেঞ্জার ছুটে আসে। সেই গাড়ির ধাক্কায় কমপক্ষে মৃত্যু হয় ৫০ জনের। আহতের সংখ্যা অনেক।

নিজস্ব চিত্র।

যদিও এই ঘটনায় চালকের কোনও গাফিলতি দেখতে পাচ্ছে না রেল কর্তৃপক্ষ। রেল প্রতিমন্ত্রী মনোজ সিনহার দাবি, ট্রেনের গতি একটা নির্দিষ্ট সীমায় বাঁধা ছিল। ঘটনাস্থলে রেল লাইনে বাঁক থাকায় এবং অন্ধকারেরর জন্য আগাম বিপদ বুঝতে পারেননি চালক। রেল কর্তৃপক্ষ সাফাই দেয়, জরুরিকালীন ব্রেক কষলেও কোনও সুবিধা হত না। উল্টে আরও বড় দুর্ঘটনা ঘটতে পারত। উল্টে যেতে পারত ট্রেন।

নিজস্ব চিত্র।

প্রত্যক্ষদর্শীদের সূত্রে জানা গেছে, তখন রেল লাইনের ট্রাকে দাঁড়িয়ে চলছিল মোবাইলে দেদার নিজস্বী তোলার হিড়িক। এমনকি রেল লাইনে দাঁড়িয়ে ফোন হাতে রাবণ দহনের সঙ্গে নিজের মুখের ছবি তুলতে ব্যস্ত ছিলেন মানুষ। দুর্ঘটনার সময়ের প্রাপ্ত ভিডিওগুলি থেকে উঠে আসছে এমনই সব ছবি।

নিজস্ব চিত্র।

এদিকে অভিযোগ উঠেছে, অনুমতি না নিয়েই এই রাবণ দহনের আয়োজন করা হয়েছিল। এমনকি এই অনুষ্ঠানে হাজির থাকা পাঞ্জাবের মন্ত্রী নবোজিৎ সিং সিধুর স্ত্রী স্বয়ং ঘটনার পর এলাকা ছেড়ে চলে যান। যদিও কংগ্রেসের পক্ষ থেকে সেই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। ইতিমধ্যে রাজ্য সরকার মৃতদের পরিবারের হাতে ৫ লক্ষ টাকা তুলে দেওয়ার ঘোষণা করেছে। প্রধানমন্ত্রী মৃতদের পরিবারকে সমবেদনা জানিয়েছেন।

নিজস্ব চিত্র।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: