জমজমাট নরসিংহ অ্যাভিনিউ-এর পুজো

HnExpress দেবাশিস রায়, কলকাতা : দীর্ঘ একবছরের অপেক্ষা প্রহর গোনার পর শারদ উৎসব শুরু হয়ে গেছে। তাও প্রায় দেখতে দেখতে তিনদিন পেরিয়ে গেছে। জমজমাট হয়ে উঠেছে নরসিংহ অ্যাভিনিউ-এর পুজো। ১১ই অক্টোবর মহাপঞ্চমীর দিন এই পুজোর শুভ উদ্বোধন করেন রাজ্যের পরিবহন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। হাজির ছিলেন দক্ষিণ দমদম পুরসভার পুরপ্রধান, উপপ্রধান ও বিধাননগর বিধানসভার বিধায়ক সুজিত বসু। এছাড়াও উজ্জ্বল উপস্থিতি ছিল ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর অভিজিৎ মিত্রর।

এদিন স্বপ্ননীড় বৃদ্ধাশ্রমের আবাসিকদের সংবর্ধনা-সহ নতুন পোশাক প্রদান করা হয়। একই সঙ্গে বিশিষ্ট সমাজসেবী সুবাসিনী মিস্ত্রী, অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, নাট্যকার ও মন্ত্রী ব্রাত্য বসু, শিল্পী যোগেন চৌধুরীকে সংবর্ধিত করা হয় পুজো কমিটির পক্ষ থেকে। দেবী দুর্গার আবাহনের সঙ্গে সংগঠনের তরফ থেকে এধরনের কাজ করতে পেরে স্থানীয় বাসিন্দা তথা সদস্যরা যারপরনাই খুশি ও আনন্দিত।

প্রসঙ্গত, পঞ্চমীর দিন থেকেই মানুষের ঢল নেমেছে পুজো মণ্ডপে। এক কথায় বলা যায় উত্তর কলকাতার শেষকথা দমদম নরসিংহ এভিনিউ অ্যাসোসিয়েশন দুর্গোৎসব। এবার এই দুর্গোৎসবের ৬৭ তম বর্ষ। দূর-দূরান্ত থেকে আসা অগণিত মানুষের ঢল, উৎসুক চোখে ও মনে একটাই কৌতুহল পুজোপ্রাঙ্গণের সেই সুখের ঠিকানা। উত্তর কলকাতা শহরতলির এই পুজো শিল্পী ইন্দ্রজিৎ পোদ্দারের মৌলিকের ভাবনা ও নৈপুণ্যতায় তৈরি হয়েছে। তাঁর হাতের ছোঁয়ায় ২০১৮-র শারদোৎসবের উপস্থাপনা এক অসাধারণ সৃষ্টিশৈলীর নিদর্শন হয়ে উঠছে। এবারের থিম ‘ঠিকানা’।

থিমের সঙ্গে সামন্জস্য রেখে প্রতিমা গড়ছেন মহিলা শিল্পী কাকলি চক্রবর্তী। যেখানে বর্তমান সামাজিক ব্যবস্থার বিবর্তনে যৌথ পরিবার ভেঙে তছনছ হয়ে যাচ্ছে। ছেলেমেয়ের উদাসীনতায় বৃদ্ধ বাবা-মায়ের একাকীত্ব, বিষণ্নতা অসহায়তা মানসিক অবসাদ আত্মহত্যার ঘটনা নিত্যনৈমিত্তিক হয়ে দাঁড়িয়েছে। সেখানে এধরনের ভাবনা সত্যিই অনবদ্য। শুধু এই শারদ উৎসবই নয়, বছরভর পুজো উদ্যোক্তারা অংশ নেন নানান সামাজিক কাজে। পাড়ার মহিলাবৃন্দও জড়িয়ে থাকেন এসব কাজে। তাইতো রক্তদান শিবির, বস্ত্রদান ও স্বাস্থ্য শিবিরের মতো অনুষ্ঠানের আয়োজন হয় ফি’বছর। পুজো কমিটির রয়েছে অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবাও।

1 thought on “জমজমাট নরসিংহ অ্যাভিনিউ-এর পুজো

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: