করোনা ভাইরাস দাওয়াই! ডানকুনিতে চলছে রমরমিয়ে গোমুত্র ও গোবর বিক্রির ব্যবসা

HnExpress ১৬ই মার্চ, নিজস্ব প্রতিনিধি, ডানকুনি ঃ করোনা ভাইরাস দাওয়াই! ডানকুনিতে রমরমিয়ে চলছে গোমুত্র ও গোবর বিক্রির ব্যবসা। গোমূত্র পার্টি থেকে প্রেরণা পেয়েই নাকি ডানকুনিতে বসে গিয়েছে গোবর, গোমূত্রের দোকান দিয়ে মাবুদ আলি। হুগলির ডানকুনিতে দিল্লি রোডের ওপরেই একটি দোকানের সামনে টেবিল পেতেই বসে পড়েছেন মাবুদ। চলছে গোবর, গোমূত্র বিক্রির রমরমা বাজার।

সুত্রের খবর, রীতিমত পেশাদারি ভঙ্গিতেই ব্যবসা চালাচ্ছেন মাবুদ, মুড়ি মিছরির মোটেই একদর নয় তাঁর কাছে। গাই গরুর মূত্র ৪০০ টাকা প্রতি লিটার, বকনার ৫০০ টাকা প্রতি লিটার। গোবরও ৫০০ টাকা/কেজি। আবার জার্সি গরু, তার আবার খাঁটি দিশিই নয়, সাথে ভেজালও আছে। তাই তার মূত্রের অত কদর নেই, তাই দাম যাচ্ছে ৩০০ টাকা/লিটার করে।

এদিকে গোবরও তাই, ৩০০ টাকা/কেজি। তবে দাম নিয়ে চাপাচাপি নেই, কেউ একবার কেনার আগ্রহ দেখালেই ৩০০ টাকার গোমূত্র ২০০ টাকা ডিসকাউন্ট দিয়েই ১০০ টাকায় ছেড়ে দিচ্ছেন তিনি। মাবুদ ব্যবসা নিয়ে যথেষ্ট সিরিয়াস। কাগজে ইংরেজি, বাংলায় লিখে টাঙিয়ে দিয়েছেন, তাঁর এই গোমূত্র, গোময় নাকি করোনা সারানোর ক্ষেত্রে মহৌষধ। তবে পরীক্ষা প্রার্থনীয়।

শুধু মুখেই যে বলছেন তা নয়, কেউ কৌতূহলী হয়ে দেখতে এলে ছোট্ট গ্লাসে করে মুখে ঢুকুস করে ঢেলেও দিচ্ছেন তিনি, সঙ্গে দরাজ আশ্বাস, বিশ্বাস করে পান করুন, করোনা সেরে যাবে। ইতিমধ্যেই বেশ কয়েজন জন কিনে ফেলেছেন তাঁর ‘মহা ওষুধ’, অন্যরা চেখে দেখেছেন, আর জানিয়েছেন, পছন্দ হলে কাল এসে কিনবেন। বস্তুতঃ মাবুদের ছিল আদতে দুধের ব্যবসা। এদিন তিনি নিজেই সংবাদমাধ্যমকে জানালেন যে, সম্প্রতি দিল্লিতে প্রচারিত হিন্দু মহাসভার গোমূত্র পার্টির খবরটিই তাঁকে এই ব্যবসায় নামার ক্ষেত্রে বুদ্ধি যুগিয়েছে।

 

Leave a Reply

%d bloggers like this: