করোনার থাবা থেকে রেহাই পেলেন না কামারহাটি বিধানসভার প্রার্থী মদন মিত্র, তবে অবস্থা অনেকটাই স্থিতিশীল তাঁর

HnExpress প্রিয়দর্শী সাধুখাঁ, কামারহাটি ঃ করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে টালমাটাল গোটা দেশ তথা বাংলা। অধীর রঞ্জন চৌধুরী, সুজন চক্রবর্তী সংক্রামিত হওয়ার পর বাদ যায়নি কমিউনিস্ট নেতা সীতারাম ইয়েচুরির বড়ো ছেলে। গতকাল মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়েন তিনি। এরপর এবার করোনায় আক্রান্ত হলেন তৃনমূলের কামারহাটি বিধানসভার প্রার্থী মদন মিত্র। বুধবার হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। সেখানেই করোনা পরীক্ষা করা হয় এবং রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

তৃনমুল প্রার্থী মদন মিত্র।

চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন যে, শ্বাসকষ্ট জনিত সমস্যায় ভুগছিলেন মদন মিত্র। এছাড়াও তাঁর শরীরে রয়েছে অন্য নানা উপসর্গ। গত শনিবার বিকেলে কামারহাটির পার্টি অফিসেই আচমকা শ্বাসকষ্ট শুরু হয় তাঁর। তড়িঘড়ি তৃণমূল প্রার্থীকে অক্সিজেন দেওয়া শুরু হয়। নিকটবর্তী একটি বেসরকারি হাসপাতাল থেকে চিকিৎসক পৌঁছান পার্টি অফিসে। দীর্ঘদিন ধরে মিটিং, মিছিলের কারনেই আক্রান্ত হচ্ছেন একাধিক প্রার্থী, কর্মী-সমর্থকেরা। এই পরিস্থিতিতে সমস্ত রকমের প্রচার বাতিলের উপর জোর দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

কিন্তু বাম নেতারা ছাড়া অন্য কারোরই খেয়াল নেই সেই দিকে। হাইকোর্ট স্পষ্ট করে দিয়েছে, সংক্রমণ রুখতে কেবল পুলিশই দায়িত্ব নেবে না, সতর্ক হতে হবে রাজনৈতিক নেতাদেরও।
সূত্রের খবর থেকে জানা গেছে, শরীরে ব্যাপক অক্সিজেনের ঘাটতি হচ্ছে মদন মিত্রের। বাইরে থেকে অক্সিজেন না দিলে, রক্তে অক্সিজেনের মাত্রা ৪০-এ নেমে যাচ্ছে। হাসপাতালে ভর্তির পর থেকে চার লিটার অক্সিজেন লেগেছে তাঁর এবং নিউমোনিয়াও হয়েছে বলেও জানা যাচ্ছে।

ছেলের মৃত্যুর শোকে বিহ্বল সীতারাম ইয়েচুরি।

যদিও হাসপাতাল সূত্রে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, প্রাথমিক ধাক্কা সামলে এখন মদন মিত্রের শারীরিক অবস্থা অনেকটাই স্থিতিশীল। তিনি উঠে বসেছেন, খাবারও খেয়েছেন, এক কথায় ভালই আছেন এখন। পরিবার সূত্রেও এই একই কথা জানানো হয়েছে।

Leave a Reply

Latest Up to Date

%d bloggers like this: