HnExpress বিশেষ প্রতিবেদন ঃ

কুমারেশ রায় (কবি সৃজন)

মাঘের পরে আসে ফাগুন
মন চেয়ে রয় বসে,
আর ক’টা দিন পরে কুসুম
উঠবে জেগে রসে।

আকাশ-বাতাস মুখরিত
রাত্রি জোড়ে মেঘে,
মুষলধারে এক পশলা
বারিষ ঝরে রেগে।

ঈশান কোণে মেঘ জমেছে
চিকুর নিরন্তরে,
নিমেষে কে উচ্চনাদে
সুধায় কলেবরে।

যশস্বী সে প্রেম-প্রকৃতি
মুগ্ধ পুলক চিতে,
আত্মগ্লানি দূর করে সে
চায় গো মিশে যেতে।

আনন্দ আর উল্লাসে তাই
বসন্তে বয় সমীর,
চৈত্রে চড়ক যায় সে চলে
বইয়ে হাওয়া খুশির।

অস্হিরতা যায় গো চলে
বসন্তের উৎসবে,
পরিস্থিতি হয় হৃদয়ঙ্গম
ঝরিয়ে শান্তি ভবে।

প্রত‍্যয় আর ভালোবাসা
নিবিড় করে পর,
মাঘ-ফাগুনের আধার জুড়ে
বসন্তেরই ঘর।

মিলন মেলায় খুশির খোরাক
রঙীন অভিলাষে,
সুর দিয়ে সে মনকে বাধে
স্নিগ্ধ সুবিন‍্যাসে।

বসন্তের-এ উৎসবই দেয়
সহিষ্ণুতার জোগান,
সেবার মধ‍্যে সবকিছু রয়
তাই সে সুখের সোপান।

বসন্তে ঐ কোকিল ডাকে
ভোরের বাতাস দাঁড়ায়,
রঙ-বেরঙের ফুলের দলে
সুর গিয়ে দুখ হারায়।

শুদ্ধতা তাই সুখের চাবি
বসন্ত দেয় ঘরে,
আমরা মানুষ শপথ নেবো
সমাজ সেবার তরে।

উৎসবই তাই সম্প্রীতি দেয়
সমাজ করে ধন‍্য,
সেবার মাঝে প্রবিত্রতা
সব মানুষের জন্য।

বসন্ত হোক তোমার আমার
বসন্ত হোক সবার,
বসন্তে সুখ শান্তি সুধায়
ভরিয়ে দেবে আবার!

3 thoughts on “এসো হে বসন্ত!

  1. কুমারেশ বাবুর লেখাটা পড়লাম। খুব ভালো লাগলো। এখানে বিশেষত কোন কোন বিষয়ের উপর লেখা পাঠাতে পারি জানতে পারলে বাধিত হবো।

    1. এই বিষয় বিস্তারিত জানতে অনুগ্রহ করে সাইটে দেওয়া সেল নাম্বারে যোগাযোগ করুন সত্বর অথবা আপনার বিষয় বিস্তারিত তথ্যসহকারে মেল করুন আমাদের অফিসিয়াল মেল আইডিতে। ধন্যবাদ। এডমিন।।

Leave a Reply

%d bloggers like this: