আমফানের প্রলয় নাচনের রেশ টুকু না কাটতেই, আবারও বাংলার দিকে ধেয়ে আসছে ঘুর্ণিঝড় নিসর্গ

HnExpress ২৩শে মে, ওয়েদার রিপোর্ট ঃ এদিকে করোনার থাবা আরেকদিকে সুপার সাইক্লোন আমফানের বিধ্বংসী তান্ডবে সম্পূর্ণ বিধ্বস্ত ও নিরাপত্তাহীনতায় জর্জরিত গোটা পশ্চিমবঙ্গ। সব থেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে মেদিনীপুর, হাওড়া, দুই ২৪ পরগণা, সুন্দরবন সহ আরও বেশ কয়েকটি জেলা। আর সে সব জায়গায় আমফানের এই প্রলয় নাচনের রেশ টুকু কাটার সময় না দিয়ে আবারও বাংলার দিকে ধেয়ে আসছে ঘুর্ণিঝড় নিসর্গ।

অন্যদিকে আগামী মঙ্গল ও বুধবার কলকাতায় ব্জ্রগর্ভ মেঘ থেকে সৃষ্ট ব্জ্রবিদ্যুৎ সহ ঝড় বৃষ্টির প্রবল সম্ভাবনাও রয়েছে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস। দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমী বায়ুর জলীয় বাষ্পের ফলেই তৈরি হচ্ছে এই ব্জ্রগর্ভ মেঘ। আবহাওয়া অফিস সুত্রের খবর, সোমবার কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে ৩৬.৭° ডিগ্রী সেলসিয়াস এর কাছাকাছি, যা স্বাভাবিক এর চেয়ে ১° ডিগ্রী বেশি, এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ২৩.৯° ডিগ্রী সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিক এর চেয়ে ৩° ডিগ্রী বেশি।

তবে এই নতুন ঘূর্ণিঝড় নিসর্গ এর প্রভাবে সারা বাংলা জুড়ে ৪-৫ দিন ধরে প্রবল ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। আগামী ৭২ ঘন্টার মধ্যে ফের প্রবল ঝড় বৃষ্টির সম্মুখীন হতে পারে কলকাতা সহ গোটা দক্ষিণবঙ্গ। হাওয়া অফিস জানিয়েছে, শহরের বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বাধিক ৯৩% এবং আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ ন্যূনতম ৪০% থাকবে। যদিও শহর
কলকাতায় সোমবার ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে খুবই সামান্য। তবে সকালের দিকে আকাশ পরিষ্কার থাকলেও বিকেল বা সন্ধ্যের দিকে বজ্রগর্ভ মেঘ থেকে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ হালকা ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছেই।

কলকাতায় ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা বাড়বে মঙ্গল ও বুধবার। আবহাওয়া দফতরের খবর অনুযায়ী মঙ্গলবার ও বুধবার রাজ্য জুড়েই বাড়বে ঝড় বৃষ্টি। বস্তুতঃ বাংলার মানুষ এখনো আমফানের সেই বিধ্বংসী আঘাত সামলে উঠতে পারে নি। বিশেষ করে দুই ২৪ পরগণা, সুন্দরবন ও হাওড়া উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া সেই তান্ডবের দগদগে ঘা শুকানোর আগেই আবার এক প্রলয়ের পূর্বাভাস বাস্তবিকই মানুষকে রীতিমতো আতংক গ্রস্ত করে তুলেছে।

এমনকি অনেকেরই ধারণা, বার বার ফিরে আসা এই বিধ্বংসী প্রলয় নৃত্য ও সাথে মারণসম করোনা ভাইরাসের মরণ থাবা নাকি পৃথিবীর ধ্বংসের পূর্বাভাস। অন্যদিকে মঙ্গলবার উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং, কালিম্পংয়েও ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস জানিয়ে হাওয়া অফিস। ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টি হবে দক্ষিণবঙ্গের ঝাড়গ্রাম, পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুরেও। বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি ও ঝড় বইবে পুরুলিয়া, বাঁকুড়াতেও। দক্ষিণবঙ্গের বাকি জেলাতেও ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

মুর্শিদাবাদ সহ প্রবল ঝড় বৃষ্টি হতে পারে নদীয়া, বীরভূম জেলাতেও। মূলতঃ দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে আবারও তৈরি হচ্ছে নিম্নচাপ। আন্দামান দীপপুঞ্জের কাছে একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হয়েছে। সেই ঘূর্ণাবর্তই সরে মঙ্গল-বুধবার নাগাদ পৌছবে দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে। যার জেরে আবারও এক সুপার সাইক্লোন এর মুখোমুখি হতে চলেছে পশ্চিমবঙ্গ।

Leave a Reply

%d bloggers like this: